দেশবাংলা

ধর্মঘটের কর্মসূচীতে অচলাবস্থা দেখা দেয় চট্টগ্রাম বন্দরে

ধর্মঘটে অচল চট্টগ্রাম বন্দর, ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশের অর্থনীতি, প্রশ্নের মুখে বর্হিবিশ্বে ভাবমূর্তি।

রাজনৈতিক দলের হরতাল এবং সড়ক পরিবহণ সংগঠনগুলোর ধর্মঘটের কর্মসূচী দিলেই চট্টগ্রাম বন্দরে অচলাবস্থা দেখা দেয়।

সম্প্রতি বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের টানা ৪৮ ঘণ্টা কর্মবিরতির প্রভাবে বন্দর থেকে বন্ধ হয়ে যায় মালামাল ডেলিভারি।

দেশের ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে চট্টগ্রাম বন্দরকে রাজনৈতিক এবং সড়ক পরিবহণ সংগঠনগুলোর সকল কর্মসূচীর আ্ওতামুক্ত রাখার দাবী বন্দর সংশ্লিষ্টদের।

সম্প্রতি বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের টানা ৪৮ ঘণ্টা কর্মবিরতির প্রভাবে চট্টগ্রাম বন্দরে দেখা দেয় অচলাবস্থা।

ধর্মঘটের কারণে কন্টেইনারবাহী প্রাইম মুভার, লরি, কাভার্ডভ্যান ও ট্রাক চলাচল না করায় বন্দর থেকে ডেলিভারি কার্যত বন্ধ থাকে।

এতে চরম আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ে আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশের অর্থনীতি। পাশাপশি বর্হিবিশ্বে দেশের ভাবমূর্তিও প্রশ্নের মুখে পড়ছে

টানা হরতাল কিংবা ধর্মঘট অব্যহত থাকলে বন্দরে কনটেইনার জট তৈরীর আশংকা তৈরি হয় বলে জানালেন চট্টগ্রাম বন্দর কর্মকর্তা।

পাশপাশি বেসরকারী কনটেইনার ডিপোগুলোকেও একই পরিস্থতির মুখোমুখি হতে হয়।

চট্টগ্রাম বন্দরকে ধর্মঘট হরতালের মতো ধংসাত্মক কর্মসূচীর আওতামুক্ত রাখতে স্থায়ী সমাধানের দাবী সংশ্লিষ্টদের।

বাংলাটিভি/এবি||একে আজাদ, চট্টগ্রাম||

সংশ্লিষ্ট খবর

Close