বিশ্ববাংলা

প্রবাসীদের কাছে আতঙ্কের নাম দক্ষিণ আফ্রিকা

পাহাড়ঘেরা দেশ,চারদিকে ফলমূলের সমাহার,খাবারের ছড়াছড়ি। আপেল,কমলালেবুসহ আর কত কি! পৃথিবীর শেষ সীমানা আর আটলান্টিক এর কোল ঘেঁষে গড়ে উঠা ব্যবসা-বাণিজ্যের অপার সম্ভাবনাময় দেশ দক্ষিণ আফ্রিকা।

শত সমস্যা আর হাজারো সম্ভাবনার হাতছানিতেই এই দেশে বাঙ্গালিরা আসতে শুরু করেন নব্বইয়ের দশক থেকে।

শুরুতে ডাক্তার,শিক্ষকসহ নানা পেশার দক্ষ লোক পাড়ি জমালেও নব্বই দশকের মাঝামাঝি থেকে সেখানে পাড়ি জমান নানা শ্রেণি-পেশার লোক।

ধীরে ধীরে নানা ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে নিজেদের ছড়িয়ে দিতে থাকেন বাংলাদেশীরা।

বাড়তে থাকে জনবল, অর্থনৈতিকভাবেও সাবলীল হয়ে উঠেন প্রবাসীরা। ফলে,ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য হাজার হাজার মানুষ দেশটিতে পাড়ি জমাতে থাকেন।

সেই দক্ষিণ আফ্রিকাই এখন প্রবাসীদের কাছে একটি আতঙ্কের নাম। দিনের বেলায়ও  টাকা-পয়সা সঙ্গে নিয়ে রাস্তায় বের হতে ভয় পান প্রবাসীরা।

আবার রাতেও ঠিকমতো ঘুমাতে পারেন না সন্ত্রাসীদের ভয়ে। দেশটিতে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশীরা জানান,

বেশিরভাগ নিগ্রোই কোনো ধরনের কাজ করে না। মদ্যপ অবস্থায় রাস্তায় প্রকাশ্যেই মাতলামি করে তারা।

সরকার মাসে মাসে তাদের নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা দেয় আর সেই টাকা দিয়েই সংসার চালায় ওরা।

দক্ষিণ আফ্রিকায় যাওয়ার পর ৮-৯ বার হামলার শিকার হয়েছেন এরকম প্রবাসীর সংখ্যাও কম নয়।

এমন কোন প্রবাসী খুঁজে পাওয়া যাবে না যার দোকানের মালামাল লুট হয়নি। যখন তখন ঘটছে সন্ত্রাসী হামলা আর প্রতিদিনই খালি হচ্ছে কোন না কোন মায়ের কোল।

তবে এখানেই কিন্তু শেষ নয়। অনেককেই কবর দেওয়া হয়েছে কালো মানুষের দেশে।

কারও আবার খোঁজই মেলেনি কোনদিন। তারপরও হার না মানা বাংলাদেশীরা শরীরে বুলেটের দাগ,

এখানে-সেখানে ডাকাতের ছুরির ক্ষতচিহ্ন নিয়েই কাজ করে যাচ্ছেন।

বাংলাটিভি/এসএম/এবি

||রনক হাসান||

সংশ্লিষ্ট খবর

Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker