ঐক্যফ্রন্টবিএনপিরাজনীতি

১০ ডিসেম্বর সোহরাওয়ার্দীতে জনসভা করবে ঐক্যফ্রন্ট

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ১০ ডিসেম্বর জনসভা করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।এতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু করতে নিজেদের দাবি দাওয়া ও খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি তুলে ধরা হবে। দুপুর ২টায় এই জনসভা শুরু হবে।

আজ বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির  সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী এ কথা জানান।

রিজভী বলেন, ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ কথাটি তামাদি করে ফেলেছে আওয়ামী সরকারের মদদপুষ্ট নুরুল হুদা কমিশন।

তিনি বলেন, ‘নির্বাচনকে প্রহসনে পরিণত করে আবারো ক্ষমতায় থাকার জন্য নানা কলাকৌশল ও নীল নকশা তৈরি করেছে সরকার। আর এই প্রহসনের অংশ হিসেবেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে নির্বাচন থেকে গায়ের জোরে দূরে রাখার চেষ্টা চালাচ্ছে।’

‘বিপুল জনপ্রিয় খালেদা জিয়া ও জনগণকে শেখ হাসিনার সবচেয়ে বড় ভয়। তাই আইন-ন্যায়বিচারের তোয়াক্কা না করে সরকার খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রেখেছে’, বলেন রিজভী।

সরকারের পক্ষে ইসির নজিরবিহীন পক্ষপাতিত্ব ভোটারদেরকে হতাশ ও ক্ষিপ্ত করে তুলছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

কোনো হুমকি-ধামকি ভয়-ভীতি দেখিয়ে এবার আর লাভ হবে না বলে উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ‘যখন জনগণ ভোটের মাঠে নেমে আসবে তখন কোনো ফন্দি কাজে দেবে না। কাঁচের মতো সব কিছু চূর্ণ-বিচূর্ণ হয়ে যাবে। অপেক্ষা করুন জনগণের বিজয়ের দিন খুবই নিকটবর্তী। সরকারের কৌশলে জনগণ আত্মসমর্পণ করবে না।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুর খায়ের ভূঁইয়া, কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, মুনির হোসেন, আমিনুল ইসলামসহ অন্যরা।

বাংলাটিভি/এমআরকে

সংশ্লিষ্ট খবর

Close