অপরাধবাংলাদেশ

অরিত্রী’আত্মহত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত দুই শিক্ষকের জামিন মঞ্জুর

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগের মামলায় দুই শিক্ষকের জামিন দিয়েছেন আদালত। সোমবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক রাজেশ চৌধুরী এ আদেশ দেন। জামিনপ্রাপ্তরা হলেন, অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, জিন্নাত আরা।
এদিন,আদালতে এসে আত্মসমর্পণ করে জামিন চান ভিকারুননিসার দুই শিক্ষক। শিক্ষকদের পক্ষের আইনজীবি বাহাউদ্দিন জামিন শুনানি করেন। পরে আদালত শুনানি শেষে ৫ হাজার টাকা মুচলেকায় জামিন পান তারা। মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য আছে।
অরিত্রীর আত্মহত্যায় ঘটনায় পল্টন থানায় তার বাবা দিলীপ অধিকারী বাদী হয়ে গত ৪ ডিসেম্বর একটি মামলা দায়ের করেন। এতে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, শাখাপ্রধান জিন্নাত আরা ও শ্রেণিশিক্ষক হাসনা হেনাকে আসামি করা হয়। মামলা দায়েরের পর ৫ ডিসেম্বর শ্রেণিশিক্ষক হাসনা হেনাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর ৯ ডিসেম্বর জামিন পান হাসনা হেনা।
অরিত্রীর বাবা দিলীপ অধিকারীর অভিযোগে বলা হয়, ২০১৮ সালের ৩ ডিসেম্বর পরীক্ষা চলাকালে অরিত্রীর কাছে মোবাইল ফোন পান শিক্ষক। মোবাইল ফোনে নকল করেছে। এমন অভিযোগে অরিত্রীকে সোমবার তার মা-বাবাকে নিয়ে স্কুলে যেতে বলা হয়। তিনি স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে ওইদিন স্কুলে গেলে ভাইস প্রিন্সিপাল তাঁদের অপমান করে কক্ষ থেকে বের হয়ে যেতে বলেন। প্রিন্সিপালের কক্ষে গেলে তিনিও একই রকম আচরণ করেন। এ সময় অরিত্রী দ্রুত প্রিন্সিপালের কক্ষ থেকে বের হয়ে যায়। পরে শান্তিনগরে বাসায় গিয়ে অরিত্রীর বাবা দেখেন, অরিত্রী তার কক্ষে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়নায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলছে।
আত্মহত্যার এ ঘটনায় দেশব্যাপী সমালোচনার ঝড় ওঠে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও স্কুল কর্তৃপক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে। তদন্ত কমিটি প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়ায় স্কুলের অধ্যক্ষসহ তিন শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়।
বাংলাটিভি/পাইক

সংশ্লিষ্ট খবর

Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker