অন্যান্যঅপরাধবাংলাদেশ

জেলে বসে নুসরাতকে হত্যার নির্দেশ অধ্যক্ষ সিরাজের, জড়িত ১৩: পিবিআই

নুসরাত জাহান রাফির করা শ্লীলতাহানির মামলার জেরে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলা জেল থেকেই তাকে পুড়িয়ে হত্যার নির্দেশ দেন বলে জানিয়েছে পুলিশ ব্যুরো আব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআই। নারকিয় এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিল ১৩ জন।এদের মধ্যে মেয়ে ছিল ৩ জন।আগুনে পুড়িয়ে মারার অভিযানে সরাসরি অংশ নেয় ৬জন।তাদের মধ্যে ২ মেয়েকে শনাক্ত করেছে পিবিআই।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে পিবিআইয়ের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান পিবিআই প্রধান বনোজ কুমার মজুমদার।

তিনি জানান, পিবিআইয়ের অভিযানে হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত পলাতক আসামিরা একের পর এক ধরা পড়ছে। গত রাতে ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় গ্রেপ্তার হয় মামলার অন্যতম আসামি শাহাদাত হোসেনকে। সংবাদ সম্মেলনে পিবিআই জানান,এ হত্যাকাণ্ড পরিকল্পিত। এতে জড়িত  মাদ্রাসার তিনছাত্রী শনাক্ত হয়েছে।

এদিকে,দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ করেছেন রাজনৈতিক দলসহ সাধারণ মানুষ। সকালে আসাদগেট ও রাজউকের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় ঘটনায় জড়িত আসামিদের সবার বিচার দাবি করেছেন,নারী নেত্রী ও মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল। প্রতিবাদ কর্মসূচি থেকে নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ সপ্তাহ পালনের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি।

ঢাকাই সিনেমার শিল্পী-কলাকুশলীরা নুসরাত হত্যাকারীদের সাজা ও ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের দাবিতে বিএফডিসির সামনে বিক্ষোভ করেছেন।

গেল ৬ এপ্রিল মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাতের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুনে ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে ১১ এপ্রিল চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নুসরাত জাহান রাফি।

বাংলাটিভি/ফাতেমা/হাকিম

সংশ্লিষ্ট খবর

Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker