বাংলাদেশ

প্রধানমন্ত্রী শনিবার তালতলীতে যাচ্ছেন

||বেলাল হোসেন মিলন, বরগুনা||

প্রধানমন্ত্রী শনিবার বরগুনার তালতলী যাচ্ছেন। টানা দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতায় আসার পর এটাই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনার  প্রথম তালতলী সফর। এর আগে ২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর তিনি সর্বশেষ তালতলী সফর করেন।

শনিবার বিকেল ৩টায় তালতলী সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামীলীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর এ সফরে বরগুনার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল, বামনা ও বেতাগী উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশন, জেলা গ্রন্থাগার, বরগুনা জেলা পুলিশ লাইনে মহিলা ব্যারাক নির্মাণসহ একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগ মূহুর্তে প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে বরগুনা জেলার সর্বত্র বইছে উৎসবের আমেজ। দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা। ২০০১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রধান জননেত্রী শেখ হাসিনা তৎকালীন বরগুনা-৩ (আমতলী- তালতলী) এ আসন থেকে জয়লাভ করেন। সর্বশেষ ২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর তালতলীতে একই মাঠে জনসভায় ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১৮ অক্টোবর দেশব্যাপী উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে আয়োজিত টেলি কনফারেন্সের সময় ঘোষণা দিয়েছিলেন, কিছুদিনের মধ্যে তিনি পটুয়াখালীর পায়রা বন্দর পরিদর্শনে আসবেন। ওই সময় আমতলী ও তালতলীর জনগণের সাথে সাক্ষাত করবেন। এর পরপরই বরগুনার তালতলী উপজেলায় তাঁর সফর কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে তালতলীসহ জেলাজুড়ে সড়ক-মহাসড়কে হাটবাজারে একটু পর পর চোখে পড়ছে রঙ-বে-রঙের ডিজিটাল ব্যানার আর ফেস্টুন। শহর ছেড়ে গ্রামেও ছড়িয়ে পড়েছে এমন সাজ সাজ রব। সবখানেই বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। এদিকে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সফল করতে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও ব্যস্ত সময় পার করছেন। ব্যস্ত সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দফতরও।

বরগুনা-১ আসনের সাংসদ সদস্য ও বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু জানান, বরগুনার তালতলী সফরের সময় জননেত্রী শেখ হাসিনা তাঁর প্রতিশ্রুতিতে বরগুনার ২৫০ বেডের নবনির্মিত হাসপাতাল, জেলা পাবলিক লাইব্রেরী, নবনির্মিত কয়েকটি কমিউনিটি ক্লিনিকসহ বিভিন্ন স্থাপনা উদ্বোধন করবেন।

তিনি আরও জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফর যাতে ফলপ্রসূ হয় তার জন্য ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহণ করা  হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো: জাহাঙ্গীর কবীর জানান, জেলার সকল নেতাকর্মীদের এ বিষয় যথাযথ পদক্ষেপ নেয়ার জন্য তিনি বলেছেন। ইতোমধ্যে বরগুনা সদর, আমতলী ও তালতলী উপজেলা আওয়ামী লীগ পৃথক পৃথক ভাবে সভা করে দলীয় সভানেত্রীর সফরকে সফল করতে ব্যাপক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর তালতলী আগমনকে সামনে রেখে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ পৃথক পৃথক সভার মাধ্যমে সফরকে সফল করতে ব্যাপক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।

বাংলাটিভি/এসএম/এবি

সংশ্লিষ্ট খবর

Close