আইন-বিচারবাংলাদেশ

সাজা হলে নির্বাচন নয়, হাইকোর্টের আদেশ বহাল

দুই বছরের বেশি সাজা হলে নির্বাচন করতে পারবে না হাইকোর্টের দেয়া এ আদেশ বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ।

দুর্নীতির অভিযোগে সাজা প্রাপ্ত (কনভিকশন অ্যান্ড সেনটেন্স) স্থগিতে হাইকোর্টের খারিজাদেশের বিরুদ্ধে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমানসহ ৫ নেতার আবেদনে সাড়া দেয়নি আপিল বিভাগ।

ফলে দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত কোনো ব্যক্তির সাজা আপিলে স্থগিত বা বাতিল না হলে তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না।

বুধবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিলের বিভাগের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত কোনো ব্যক্তি পুরোপুরি খালাস না হওয়া পর্যন্ত নির্বাচনে কেউ অংশ নিতে পারবেন না বলে মঙ্গলবার আদেশ দেন হাইকোর্ট।

গতকাল রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছিল- বিচারিক আদালতে কারও বিরুদ্ধে দুই বছরের বেশি সাজা বা দণ্ড হলে সেই দণ্ড বা সাজার বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল বিচারাধীন থাকাবস্থায় নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না। যতক্ষণ না আপিল বিভাগ ওই রায় বাতিল বা স্থগিত করে জামিন না দেন।

এ আদেশ স্থগিত চেয়ে মঙ্গলবারই আপিল করেন বিএনপি নেতা ডা. এজেডএম জাহিদ। পরে চেম্বার আদালত আবেদনটি শুনানির জন্য পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ পাঠিয়ে দেন। পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ আজ রায় দিল।

এ রায়ের ফলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ারও নির্বাচনে অংশ নেয়ার পথ রুদ্ধ হয়ে গেল। কারণ খালেদা জিয়া দুর্নীতির দুটি মামলায় ১৭ বছর দণ্ডিত।

বাংলাটিভি/এসএম/এবি

সংশ্লিষ্ট খবর

Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker