আন্তর্জাতিকমধ্যপ্রাচ্য

খশোগিকে হত্যায় সৌদি সরকারের উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশ ছিল: এরদোয়ান

জামাল খশোগিকে হত্যায় সৌদি সরকারের উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশ ছিল; ওয়াশিংটন পোস্টের কলামে লিখেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান। প্রভাবশালী মার্কিন পত্রিকা দ্য ওয়াশিংটন পোস্টে লেখা এক কলামে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমরা জানি যে খাশোগিকে হত্যার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল সৌদি সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে।’ তবে তুরস্কের সঙ্গে সৌদি আরবের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা উল্যেখ করে তিনি লিখেন, আমি বিশ্বাস করি বাদশাহ সালমান এ ঘটনার সাথে জড়িত ছিলেন না।

এরদোয়ান তার কলামে লিখেছেন, ‘আমরা জানি যে সৌদি আরবে গ্রেফতার করা ১৮ জনের মধ্যে অপরাধীরা রয়েছে। আমরা এটাও জানি যে, খাশোগিকে হত্যার নির্দেশ এসেছে সৌদি সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে।’এই হত্যাকাণ্ডে কেবল নিরাপত্তা কর্মকর্তারাই না আরও অনেকে ছিলেন বলে দাবি করেন এরদোয়ান।

মোহাম্মদ বিন সালমান ক্রাউন প্রিন্সের দায়িত্ব পাওয়ার পরপরই খাশোগি যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস শুরু করেন। খাশোগি সৌদি আরবের বর্তমান রাষ্ট্রনীতির কট্টর সমালোচক ছিলেন। তার নতুন বিয়ের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতে গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলের সৌদি দূতাবাসে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই তাকে হত্যা করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে। আর এর জন্য দায়ী করা হয় সৌদি যুবরাজকে। সৌদির কর্মকর্তারা প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে স্বীকার করে নেন খাশোগিকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে ‘হত্যা’ করা হয়। এই ঘটনায় দূতাবাসের দু’’জন সিনিয়র কর্মকর্তাকে বহিষ্কার ও ১৮ জনকে গ্রেফতারের কথা জানিয়েছে সৌদি আরব। তবে ‘হত্যাকাণ্ডে’ যুবরাজ সালমানের জড়িত থাকার বিষয় অস্বীকার করেছে দেশটি।

বাংলাটিভি/প্রিন্স

সংশ্লিষ্ট খবর

Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker