দেশবাংলা

প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করা মুক্তিযোদ্ধা ক্ষিতিশ সরকারের মৃত্যু

নাজমুল রিপন, আগৈলঝাড়া : দু-দু’বার স্ট্রোক করা মুক্তিযোদ্ধা ক্ষিতিশ সরকার আর নেই। দীর্ঘদিন রোগে ভুগে ৭০ বছর বয়সে শুক্রবার রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাষ ত্যাগ করেছেন তিনি। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক মেয়ে ও তিন ছেলে রেখে গেছেন।

মুক্তিযোদ্ধা ক্ষিতিশ সরকারের মৃত্যুতে দক্ষিণাঞ্চলীয় মুজিব বাহিনীর প্রধান, জামুকা’র অন্যতম সদস্য আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ –এমপি’র স্থানীয় প্রতিনিধি উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সুনীল কুমার বাড়ৈ, সহ-সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রইচ সেরনিয়াবাত, সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ মো. লিটন সেরনিয়াবাত শনিবার সকালে স্বর্গীয় ক্ষিতিশ সরকারের বাড়িতে ছুটে যান।

তারা ক্ষিতিশ সরকারের আত্মার শান্তি কামনা করে শোকার্ত পরিবারের প্রতি গভীর ও সমবেদনা জানিয়ে মুক্তিযোদ্ধা ক্ষিতিশ সরকারের পরিবারের সকল দায় দায়িত্ব এমপি নিয়েছেন বলে পরিবারকে আশ্বস্ত করেন। এসময় ওই প্রতিনিধিরা এমপি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ’র ব্যক্তিগত তহবিল থেকে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।

শনিবার সকালে রাস্ট্রীয় মর্যাদা প্রদান শেষে দুপুরে উপজেলার পশ্চিম সুজনকাঠি গ্রামের নিজ বাড়িতে মুক্তিযোদ্ধা ক্ষিতিশ সরকারকে সমাহিত করা হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধা ক্ষিতিশ সরকার জাতির পিতার ভাগ্নে আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ -এমপি’র মাধ্যমে মানননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সংবাদপত্রের মাধ্যমে তার সুচিকিৎসা ও আবাসন সমস্যার সমাধান চেয়েছিলেন। যা গত ৩ সেপ্টেম্বর বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছিল।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close