দেশবাংলা

পূবাইলে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ, ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগ

গাজীপুর মহানগরীর পূবাইল এলাকায় (১০) বছরের এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষণের অভিযোগে শিশুটির মামাতো নানা সামসুল হক(৫৫) পলাতক রয়েছে। নির্যাতিতা শিশুটি স্থানীয় আলোর দিশারী নাম একটি স্কুলে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী।

গত শনিবার দুপুরে তালুটিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। অভিযুক্ত স্থানীয় মৃত.মান্নান খানের ছেলে। এ ঘটনায় নির্যাতিত শিশুটির মা পূবাইল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় বাইতুল মামুর জামে মসজিদের মোতয়াল্লী শিশুটিকে একা পেয়ে মসজিদের পাশের একটি কক্ষে ডেকে নিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। এ সময় গামছা দিয়ে শিশুটির মুখ বেঁধে রাখে। স্থানীয় এক নারী শিশুটির সঙ্গে ঘটে যাওয়া নির্যাতনের ঘটনাটি দেখে ফেললে বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে গত শনিবার ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি সালিশের নামে সময় কালক্ষেপণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ শিশুটির মা। তিনি বলেন, ধর্ষক সামসুল হক আমার আপন মামা। এত ছোট মেয়েকে সে ধর্ষণ করেছে। আমি স্থানীয়দের কাছে বিচার চাইতে গেলে আমাকে দেয়া আমার নানা বাড়ির দানকৃত সম্পত্তি ফিরিয়ে নেওয়ার হুমকি দেয় তিনি।

গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দিন আহম্মেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরএমও ডা. প্রণয় ভূষণ দাস (মুঠোফোনে) বলেন, শিশুটিকে ধর্ষণের অভিযোগে হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের গাইনি ডাক্তার দিয়ে ধর্ষণের আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। আলামত পরীক্ষা করার জন্য পাঠানো হয়েছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের পূবাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হক ভূইয়া ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close