অন্যান্যবাংলাদেশ

২ বছরে রোহিঙ্গা ক্যাস্পে জন্ম নিয়েছে ৮০ হাজার শিশু

আমিনুল হক, কক্সবাজার : বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা গত ২ বছরে কত শিশুর জন্ম দিয়েছে তার সঠিক কোন পরিসংখ্যান নেই সরকারের কাছে। কক্সবাজার সিভিল সার্জন অফিস জানিয়েছে, গত ২ বছরে রোহিঙ্গা ক্যাস্পে জন্ম নিয়েছে প্রায় ৮০ হাজার শিশু। আর বর্তমানে গর্ভবতী আছেন আরো প্রায় ৪০ হাজার নারী। তবে বেসরকারী হিসেব মতে এ সংখ্যা আরো বেশি বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের।

২০১৭ সালের ২৫ আগষ্ট থেকে বাংলাদেশে আসতে শুরু করে মিয়ানমারের নাগরিক রোহিঙ্গারা। সে সময়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া সাড়ে ৭ লাখ রোহিঙ্গার মধ্যে ৫২ হাজার নারী ছিল গর্ভবতী। এর আগে থেকে বাংলাদেশে অবস্থান করছিলেন আরো ৫ লাখ রোহিঙ্গা। সব মিলিয়ে সাড়ে ১২ লাখেরও অধিক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। রোহিঙ্গা শিশুর জন্ম নিয়ে সরকারী বেসরকারী কারো কাছে নেই সঠিক কোন পরিসংখ্যান।

তবে ইউ এন এজেন্সী ইউএনএইচসিআর ও ইউনিসেফ এর জরিপ অনুযায়ী কক্সবাজার সিভিল সার্জন অফিস জানিয়েছে, কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফের ৩২ টি ক্যাম্পে প্রতিদিন ৮০ থেকে ১০০ টি শিশুর জন্ম হচ্ছে। সে হিসেবে বছরে ৩২ থেকে ৩৫ হাজার শিশু জন্ম নিচ্ছে। রোহিঙ্গা শিশুর জন্মহার যেভাবে বাড়ছে, তা অব্যাহত থাকলে পরিস্থিতি কি হতে পারে, তা নিয়ে সরকারি মহলে তৎপরতা না থাকলেও অস্থিরতা বাড়ছে কক্সবাজারের স্থানীয়দের মাঝে।

৩২ টি ক্যাম্পে কাজ করছে কক্সবাজার পরিবার পরিকল্পনা অফিসের ২শ মাঠ কর্মী। জেলা পরিবার পরিকল্পনার উপ-পরিচালক পিন্ট চক্রবর্তী বলেন, যারা ক্লিনিকে এসে ডেলিভারী করেন তারাই রেজিষ্ট্রেশনের আওতায় আসছেন। তবে হোম ডেলিভারীর সংখ্যা অনেক বেশি। গত ২ বছরে মাত্র ৬ হাজার ৩শ ৪২ জন নারীর সন্তান প্রসবের হিসেব আছে জেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসে।

কক্সবাজারের সিভিল সার্জন আব্দুল মতিন জানান, গত ২ বছরে মোট কত শিশু জন্ম হয়েছে তার কোন সঠিক পরিসংখ্যান নেই। তবে ইউ এন এজেন্সীর হিসেব মতে গত ২ বছরে ৭০ থেকে ৮০ হাজার রোহিঙ্গা শিশুর জন্ম হয়েছে। তবে এ সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।

বাংলাটিভি/ নূর

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close