ক্রিকেটখেলাধুলা

বিশ্ব গণমাধ্যমেও প্রশংসায় যুব টাইগাররা

অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেটে বিশ্বজয়ে নতুন ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ দল। জুনিয়র টাইগারদের এই সাফল্যে শিক্ত আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। লাল-সবুজ তারুণ্যের জয়কে নানা উপমায় শিরোনাম করেছে ফাইনাল হারা খোদ ভারতীয় গণমাধ্যমসহ অন্যান্য বড়বড় বার্তাসংস্থা গুলো। আর যুবাদের অভিনন্দন জানাতে ভুল করেননি তামিম-মুশফিক থেকে শুরু করে বিশ্ব ক্রিকেটের লিজেন্ডরা।

       

ঠিক যেন বহুকাল ধরে এই মুহুর্তটির অপেক্ষায় ছিলো বাংলাদেশের ক্রিকেট। সিনিয়ররা যেখানে অনেকবার তীরে এসে তরি ডুবিয়েছে, তখন যুব ক্রিকেটাররা স্বগর্বে উচিয়ে ধরেছে লাল-সবুজের পতাকা। পচেফস্ট্রুমের আকাশে ৫৭ হাজার বর্গমাইলের কেতন উড়িয়ে তারা জানান দিলো, এতো সবেমাত্র শুরু; বিশ্বকে এখনো অনেক কিছু দিতে পারে আগামীর টাইগাররা।

           

আকবার আলি-শরিফুল-ইমনদের এই সাফল্য শুধু দেশীয় গণমাধ্যমে নয়, জায়গা করে নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমেও। হিন্দুস্তান টাইমস বলছে, অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে রবি বিষ্ণোয়ের উচ্ছাস পন্ড।

ভারতকে স্তম্ভিত করেছে বাংলাদেশ, প্রিয়মরা হারালো বৈশ্বিক খেতাব-টপলাইন করেছে- দ্য হিন্দু’র। সবচেয়ে আলোচিত গণমাধ্যম আনন্দবাজারের শিরোনাম, চার বারের চ্যাম্পিয়ানকে হারিয়ে ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ।

         

যুব বিশ্বকাপের শিরোপা জিতলো বাংলাদেশ ক্রিকেটের সোনালী প্রজন্ম- এটি বিবিসির টপলাইন। দ্য শ্রীলঙ্কান টাইমস এবং পাকিস্তানের দ্য ডন অনলাইন বলছে, ম্যান্ডেলার মাটিতে আকবরদের জয়।  বার্তা সংস্থার এপিতেও এসেছে টাইগারদের ভূয়সী প্রশংসার খবর। ক্রিকইনফো তাদের শিরোনামে উল্লেখে করেছে, এটি বাংলাদেশের সবে মাত্র শুরু।

           

এদিকে, সামাজিক মাধ্যমে ছোটভাইদের অভিনন্দন জানাতে ভুল করেন মাশরাফি-সাকিব-তামিম-মুশফিক-মুস্তাফিজরা। এখানেই শেষ নয়, ভারতীয় ক্রিকেটের একসময়কার স্টার খ্যাত মোহাম্মদ কাইফ, ধারাভাষ্যকার হার্সা ভোগলে। বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে যারা সমালোচনায় ব্যস্ত ছিলেন তাদের একজন টম মুডি তার টুইট বার্তায় বলেন, এই ট্রফি প্রাপ্য ছিলো লাল-সবুজদের।

       

প্রতিক্রিয়া যাই হোক এটি নিঃসন্দেহে সত্য, এ অর্জনে, সব ছাপিয়ে যুব টাইগাররা হয়ে উঠেছে বিশ্বক্রিকেটের ‘আনবিটেবল আন্ডার-নাইনটিনস’

মোহাম্মদ হাসিব, বাংলাটিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close