অন্যান্যদেশবাংলাবাংলাদেশ

মা হলেন ঝিনাইদহের অন্ত:সত্তা মানসিক প্রতিবন্ধী নারী

মা হলেন,ঝিনাইদহের সেই অন্ত:সত্তা মানসিক প্রতিবন্ধী নারী।কিন্তু বাবা হননি কেউ।শুক্রবার বিকেলে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তানের জন্ম দেন তিনি। খবরটি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে,প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তার পাশে দাঁড়িয়েছে প্রশাসন। জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ হাসপাতালে প্রতিবন্ধী নারী ও সন্তানকে দেখতে গিয়ে অর্থ সহায়তার পাশাপাশি,পরবর্তীতে বাচ্চার সব ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহন করার আশ্বাস দেন।

পরিচয়হীন অন্তঃসত্তা মানসিক প্রতিবন্ধী ঐ নারী ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার কোলাবাজারে এলামেলো ঘোরাফেরা করতেন। কোনএক সময় অন্তস্বত্তা হয়ে পড়লে,অসহায় এ নারীকে নিজ বাড়িতে আশ্রয় দিয়ে সেবাযত্ন করেন,স্থানীয় বাসিন্দা আমজাদ-ছাকিরন দম্পতি।দিনমজুর আমজাদের অভাবের সংসার হলেও, পরিবারের সদস্যের মত সেবাযত্ন ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন তারা।

তাদের এই মহত্বের বিষয়টি তুলে ধরে দিনমজুর আমজাদের “মানবিকতার দৃষ্টান্ত শিরোনামে” বিভিন্ন দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত এবং সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে জানাজানি হলে, বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিতে আসে। পরে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে প্রতিবন্ধী নারীর পাশে দাঁড়ায় প্রশাসন। জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ হাসপাতালে গিয়ে প্রতিবন্ধী মা ও তার সন্তানের সব দায়িত্ব সরকার বহন করবে বলে জানায়।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জানান,ভূমিষ্ঠ হওয়ার আগে, অবস্থা স্বাভাবিক না থাকায়, অপারেশনের মাধ্যমে সন্তান প্রসব করানো হয়। মা ও নবজাতক সুস্থ আছেন। চিকিৎসাসহ ভবিষ্যতে মা ও সন্তানের কোন সমস্যা হবেনা বলে জানান, জেলা প্রশাসক।

জেলা প্রশাসকের সাথে,উপজেলা নির্বাহী অফিসার সূবর্না রানী সাহা, সদর হাসপাতালের সার্জিক্যাল বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এম এ কাফি,মেডিকেল অফিসার আফসানা পারভিনসহ স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন ।

 

বাংলাটিভি/দেশবাংলা

 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button