অন্যান্যবাংলাদেশরাজনীতি

বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় অংশীদার হতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

করোনা মহামারী মোকাবেলা ও রোহিঙ্গা সংকট সমাধানসহ  বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় অংশীদার হতে চায় যুক্তরাষ্ট্র, এমনটাই জানিয়েছেন সফররত দেশটির উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন ই বিগান। রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানান তিনি।

এসময় ডক্টর মোমেন জানান, বঙ্গবন্ধুর খুনী রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফিরিয়ে আনতে বাংলাদেশের প্রস্তাব যুক্তরাষ্ট্র গুরুত্বের সাথে নিয়েছে। তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে বাংলাদেশে অবস্থান করছেন যুক্তরাষ্ট্রের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন ই বিগান। সকালে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় ‍দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।বৈঠক শেষে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেন দুই মন্ত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, কোভিড-১৯, রোহিঙ্গা ইস্যুসহ দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে।যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের একই ভিশন উন্মুক্ত, অন্তর্ভুক্তমূলক, শান্তিপূর্ণ গড়ে তোলা ও কোভিড-১৯, রোহিঙ্গা ইস্যু, ব্লু ইকোনমি, স্টুডেন্ট ভিসা সহজীকরণসহ   বাংলাদেশে বিনিয়োগ সহ বিভিন্ন ইস্যু আলোচনায় প্রাধান্য পেয়েছে। বিশেষ করে অগ্রযাত্রায় অংশীদার হতে চায় যুক্তরাষ্ট্র।

অপরদিকে,বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ধরে রেখে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রার সঙ্গী হওয়ার পাশাপাশি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সব সময় পাশে থাকবে বলে জানান, যুক্তরাষ্ট্রের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন ই বিগান।ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার, এছাড়া রোহিঙ্গা সংকটের শুরু থেকেই যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের পাশে রয়েছে। এ সংকট সমাধানে মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়াতে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র।

বঙ্গবন্ধুর খুনী রাশেদ চৌধূরীকে ফিরিয়ে আনতে বাংলাদেশের আবেদন যুক্তরাষ্ট্র পুনরায় বিবেচনা করবে বলেও জানান, ডক্টর এ কে আব্দুল মোমেন।

 বাংলাটিভি/শহীদ 

 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button