বাংলাদেশঅন্যান্য

অ্যান্টিবডি টেস্ট: কিট সরবরাহের আশাবাদ গণস্বাস্থ্যের

করোনা প্রাদুর্ভাবের প্রায় ১০ মাস পর দেশে ভাইরাসটির অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমোদন দিয়েছ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। দেশীয় প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য বলছে, সরকারের সহযোগিতা পেলে এক মাসের মধ্যে অ্যান্টিবডি কিট বাজারের নিয়ে আসার কথা। শতভাগ গুনগত মান বজায় থাকলে যেকোন কিট নিতে সরকার প্রস্তুত বলে করোনাভাইরাস নিয়ে জাতীয় পরামর্শক কমিটি।

শরীরে নির্দিষ্ট কোন রোগের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি বা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়েছে কিনা, সেটি পরীক্ষা করার জন্য রক্তের নমুনা নিয়ে অ্যান্টিবডি টেস্ট করা হয়ে থাকে। সহজাতভাবেই, করোনাভাইরাসেও কেউ আক্রান্ত হয়েছিলেন কিনা, সেটিও বুঝতে পারা যায় অ্যান্টিবডি টেস্টে। করোনা প্রাদুর্ভাব বাড়ায় অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমতির জন্য অনেকদিন ধরেই দাবি করা হচ্ছিলো।

অবশেষে অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমতি দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তবে এ পরীক্ষার জন্য সম্পূর্ণ নির্ভর করতে হবে কিট আমদানির উপর। দেশীয় প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য বেশ কয়েক মাসধরেই দাবি করে আসছে এই অ্যান্টিবডি কিট উদ্ভাবনের। তবে অনুমতি না থাকায় তারা আশার আলো দেখতে পাচ্ছিলো না তারা। সরকারের অনুমতি পেলে তারা অ্যান্টিবডি কিট সরবরাহ করতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছে গণস্বাস্থ্য।

কিট নেয়ার ক্ষেত্রে দেশের হোক বা বাইরের, তা অবশ্যই শতভাগ নিরাপদ হতে হবে উল্লেখ করে করোনাভাইরাস নিয়ে জাতীয় পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ জানান, গুনগত মান ঠিক থাকলে দেশের কিটকে আগে অগ্রাধিকার দেয়ার কথা।

তবে এন্টিবডি কিট যেখান থেকেই আসুক, তা করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগের ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রাখবে বলেও জানান তিনি।

বুলবুল আহমেদ, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button