বিশ্ববাংলা

বাংলাদেশে রেমিটেন্স পাঠানোয় ৭ নম্বরে ওমান

ওমান প্রবাসীর রেমিটেন্স বাংলাদেশীদের জন্য আশীর্বাদ স্বরূপ তাই ওমান বাংলাদেশীদের জন্য একটি সম্ভাবনাময়ী দেশ ।

নিরাপত্তা ও উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার কারনে ইতিমধ্যেই দেশটি বিশ্বের শান্তিপ্রিয় দেশের তালিকায় দশ নাম্বার অবস্থান ধরে রেখেছে।

দেশটিতে প্রায় আট লাখের মতো বাংলাদেশী বসবাস করছেন। রেমিটেন্স প্রেরণের দিক থেকেও সাত নাম্বারে রয়েছে ওমান।

বাংলাদেশ এবং ওমানের মাঝে ব্যবসায়ীক সম্পর্ক তৈরি করতে ওমানের বাংলাদেশ দূতাবাস কাজ করে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন দূতাবাসের হেড অব চেন্সারী আবুল হাসান মৃধা।

দেশটিতে বসবাসরত ৮লাখ বাংলাদেশীকে সেবা দিতে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ দূতাবাস ওমান।

শনিবার মাস্কাটের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মুহাম্মাদ বরকত আলীর উদ্যোগে ডিনারপার্টিতে তিনি একথা জানান।

মাতরার বিখ্যাত ১৪ কালার জ্যুস কোম্পানির কর্ণধার মুহম্মদ বরকত আলী গত শনিবার এই ডিনার পার্টির আয়োজন করেন।

ডিনারপার্টির একপর্যায়ে একান্ত আলোচনায় দূতাবাসের হেড অব চেন্সারী আবুল হাসান মৃধা প্রবাসীদের বিভিন্ন স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন ও দূতাবাসের বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরেন।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের হেড অব চেন্সরী আবুল হাসান মৃধা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ থেকে আগত বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এমডি সামজিদ মিয়া।

এসময় বরকত আলী তার রেস্টুরেন্টের বিখ্যাত সেই ১৪ কালারের জ্যুস সহ অন্যান্য খাবার দিয়ে  অতিথিদের আপ্যায়ন করেন।

এরপর মাস্কাটের নিকটতম বীচ কান্তাব মেরিনা বন্দর থেকে ডলফিন দেখার জন্য আরব সাগরের ডলফিন পয়েন্টে যান সবাই।

ওমানের এমন প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখে মুগ্ধ বাংলাদেশী ব্যবসায়ী সামজিদ মিয়া।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button