অন্যান্যবাংলাদেশরাজনীতি

প্রধানমন্ত্রীকে আবারও চিঠি দিয়েছে ঐক্যফ্রন্ট

সংলাপের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আবারও চিঠি দিয়েছেন বিএনপিসহ সরকারবিরোধী

দলগুলোর জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রধান নেতা ড. কামাল হোসেন। জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে

সামনে রেখে দ্বিতীয়বার ছোট পরিসরে সংলাপে বসার জন্য এই চিঠি।

ধানমণ্ডির কার্যালয়ের স্টাফ আলাউদ্দিনের হাতে চিঠিটি হস্তান্তর করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের

নেতা আ অ ফ শফিক উল্লাহ ও বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান,

মোস্তাক আহমেদ ও জগলুল আফ্রিক ।

রোববার বেলা ১২টার দিকে শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এ প্রসঙ্গে গণমাধ্যমে শায়রুল কবির খান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা থাকায় আওয়ামী লীগ নেতারা

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অবস্থান করছেন বলে আমাদের জানানো হয়েছে। এ কারণে আলাউদ্দিনের হাতে আমরা চিঠি পৌঁছে দিয়েছি।

চিঠিতে ড. কামাল হোসেন লিখেছেন:

প্রিয় মহোদয়, সালাম ও শুভেচ্ছা নিবেন।

গত ১ নভেম্বর গণভবনে অনুষ্ঠিত সংলাপের জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ৭ দফা দাবির ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে।

এ আলোচনার উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। দীর্ঘ সময় পর্যন্ত আলোচনার

পরও আমাদের আলোচনাটি অসম্পূর্ণ থেকে যায়। সেই দিন আপনি বলেছিলেন আমাদের আলোচনা অব্যাহত থাকবে।

তারই পরিপ্রেক্ষিতে অসম্পূর্ণ আলোচনা সম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে অতি জরুরি ভিত্তিতে আমার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষে

আবারও সংলাপে বসবে আগ্রহী। এই ক্ষেত্রে দফাগুলোর সাংবিধানিক এবং আইনগত দিন বিশ্লেষণের জন্য উভয়

পক্ষের বিশেষজ্ঞসহ সীমিত পরিসদের আলোচনা আবশ্যক।

সংলাপ শেষ, আলোচনা ভালো হয়েছে: ড. কামাল; সন্তুষ্ট নই: ফখরুল

আপনার অপগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, সংলাপ শেষ হওয়ার আগে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না করার আহ্বান জানিয়ে ৩ নভেম্বর প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর জাতীয় ঐক্যফন্টের পক্ষ থেকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় ড. কামাল হোসেনের মতিঝিলের চেম্বারে ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষনেতাদের বৈঠকে

এই চিঠি পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়।

এছাড়া বৈঠকে এখন থেকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র হিসেবে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

দায়িত্ব পালন করবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাত দফার আন্দোলন সম্মিলিতভাবে কার্যত এক দফার আন্দোলনে রূপান্তরিত হতে যাচ্ছে।

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের নিশ্চয়তার একক দাবির কথাই এখন বলছেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা।

এক্ষেত্রে সংবিধানের সংশোধন ও নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের বিষয়েও বেশ নমনীয় মনোভাব দেখাচ্ছেন তারা।

বাংলাটিভি/এসএম/এবি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close