জাতীয় নির্বাচনবিএনপিরাজনীতি

নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারছেন না খালেদা জিয়া

নির্বাচনে অংশ নিতে পারছেন না সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। প্রার্থিতার বৈধতা নিয়ে করা রিট হাইকোর্টের তৃতীয় বেঞ্চেও খারিজ করে দিয়েছ। আজ মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) বিচারপতি জে বিএম হাসানের একক বেঞ্চ খালেদা জিয়ার আবেদনটি খারিজ করে দেন। এই আদেশের পর অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম জানান, তৃতীয় বিচারকের রায়ই চূড়ান্ত । আর যেহেতু রিটটি সরাসরি খারিজ করেছেন  তৃতীয় বিচারক , তাই  খালেদা জিয়া নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেননা। এর আগে, খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের অনাস্থা আবেদন খারিজ করে দেয় আদালত। এরপর রিটের শুনানি না করেই আদালত বর্জন করেন তার আইনজীবীরা। আজ মঙ্গলবার সকালে অনাস্থা জানিয়ে লিখিত আবেদন দাখিল করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। এরপর আদালত তাদের এই অনাস্থা আবেদন খারিজের আদেশ দেন এবং প্রার্থিতা চেয়ে খালেদা জিয়ার রিটের ওপর শুনানি করতে বলেন। খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আদালতকে বলেন, ‘আমরা এই কোর্টের ওপর অনাস্থা জানিয়েছি। আপনি আমাদের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন। এখন আমরা এই আদেশের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আদালতে যাবো। তা সত্ত্বেও রিটের শুনানি করতে বলছেন কেন?’

এরপর আদালত খালেদা জিয়ার রিট আবেদনের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের পক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে শুনানি করতে বলেন। মাহবুবে আলম শুনানি শুরু করতে থাকলে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আদালত বর্জন করে বেরিয়ে আসেন।

এর আগে, গত বৃহস্পতিবারও একক বেঞ্চের প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। খালেদা জিয়া ফেনী-১, বগুড়া-৬ ও বগুড়া-৭ আসন থেকে নির্বাচন করতে মনোনয়নপত্র জমা দেন। যাচাই-বাছাই শেষে তিন আসনের মনোনয়নপত্রই বাতিল করেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা।

বাংলাটিভি/এমআরকে

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close