ঐক্যফ্রন্টবিএনপিরাজনীতি

প্রশাসন ও আওয়ামী লীগ গণশত্রুতে পরিণত হয়েছে: ফখরুল

প্রশাসন ও আওয়ামী লীগ গণশত্রুতে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ‘রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মধ্য দিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়া হলো আবার। এ ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়ার মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ ও প্রশাসন সম্পূর্ণভাবে গণশত্রুতে পরিনত হয়েছে।’

শনিবার (৫ জানুয়ারী) সকাল ১০ টায় নির্বাচনি সহিংসতায় নোয়াখালীর সুবর্ণচরে ধর্ষণের শিকার নারীকে দেখতে যাওয়ার পথে কুমিল্লা বিশ্বরোডে জমজম হোটেলে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে, নির্বাচনের দিন এবং এরপরের সহিংসতার মধ্য দিয়ে গোটা বাংলাদেশে একটা সহিংস ত্রাস এবং নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করা হয়েছে। আমরা দেখেছি নোয়াখালীতে আমাদের এক বোন ধর্ষিত হয়েছে। আমরা এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছি, একই সঙ্গে সারাদেশের অন্য সহিংসতারও আমরা নিন্দা জানিয়েছি। জনগনের কাছে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি এই সহিংসতা প্রতিরোধের। বিশেষ করে নির্বাচন কমিশনকে আমরা বলেছি এই সহিংসতা সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করতে। তাদের উচিৎ হবে এই সহিংসতা বন্ধ করা।’

এর আগে সকাল সাড়ে ৭ টায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বেশ কয়েকজন শীর্ষনেতা গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে গাড়িবহরে নোয়াখালীর উদ্দেশে রওনা দেন।

গাড়িবহরের আরও উপস্থিত আছেন জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান মো:শাজাহান, যুগ্ম-মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দীন খোকন, হারুনুর রশিদ, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, বিএনপি প্রেসউইংয়ের দুই সদস্য শামসুদ্দিন দিদার ও শাইরুল কবীর।

বাংলাটিভি/পাইক

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close