জাতীয় পার্টিরাজনীতি

এরশাদ শীঘ্রই সুস্থ হয়ে দেশে ফিরবেন: জি এম কাদের

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ শীঘ্রই সুস্থ হয়ে দেশে ফিরবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জি এম কাদের। মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর কাকরাইলে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এরশাদের সুস্থতা কামনায় আয়োজিত দোয়া মাহফিলে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

জি এম কাদের বলেন, ‘আমি সিঙ্গাপুরে ফোন করে তার খোঁজখবর নিয়েছি। আমাকে জানিয়েছে আজ বিকেলে তিনি বারান্দায় হাঁটাচলা করেছেন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তিনি আস্তে আস্তে সুস্থ হয়ে উঠবেন।’

জাতীয় পার্টির সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার পথ সৃষ্টি হয়েছে। এরশাদ সাহেব না থাকলে এই পথের গতি ধীর হয়ে যাবে উল্লেখ করে জি এম কাদের বলেন, ‘এরশাদ সাহেবের শারীরিক অবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে। দুএকদিনের মধ্যেই তার শারীরিক দুর্বলতা কেটে যাবে। তিনি কর্মমুখী মানুষ। বয়স হয়েছে, এখন নানা স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিয়েছে। তিনি দেশের মানুষের জন্য আজীবন কাজ করে গেছেন। তাকে হুইল চেয়ারে দেখে অনেক মানুষ কেঁদেছেন। তার জন্য দোয়া করেছেন।’

জাতীয় পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গাঁ এরশাদকে বেহেস্তি মানুষ উল্লেখ করে বলেন, ‘এরশাদ ইসলামিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিল। তিনি ইসলাম প্রতিষ্ঠায় আজীবন কাজ করে গেছেন। কিছু মানুষ আছে তারা হয়তো প্রতিহিংসামূলকভাবে গুজব ছড়াচ্ছেন।’

এ ছাড়া শুকুনের দোয়ায় গরু মরে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি এরশাদ সাহেবের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি জানতে চেয়েছেন, ‘দেশে নাকি খবর বেরিয়েছে আমি আর নেই’। এ সমস্ত গুজব, প্রতিহিংসামূলক আচরণ ছাড়া আর কিছু নয়।

আলোচনা শেষে এরশাদের সুস্থতা কামনায় বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন এরশাদের উপদেষ্টা ক্বারী মোহাম্মদ বেলালী।

এর আগে ২০ জানুয়ারি সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি বিমানে তিনি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন। তার সঙ্গে ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর (অব.) মো. খালেদ আখতার, এরশাদের ছোট ভাই হুসেইন মোর্শেদ এবং মোর্শেদ-এর স্ত্রী রুখসানা খান মোর্শেদ।
একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আগে গত বছরের ১২ ডিসেম্বর ‘উন্নত চিকিৎসার জন্য’ সিঙ্গাপুরে গিয়েছিলেন এরশাদ। জয়ী হওয়ার পর দেশে ফিরে শপথও নেন। কিন্তু এরপর থেকেই তিনি সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন থাকেন।
বাংলাটিভি/পাইক

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close