আন্তর্জাতিকমধ্যপ্রাচ্য

নিজেকে পুড়িয়ে মারলেন সাহার

চলতি বছরের মার্চ মাসে ইরানের রাজধানী তেহরানের একটি স্টেডিয়ামে সাহার নামের ২৯ বছর বয়সী এক নারী ফুটবলপ্রেমী পুরুষ সেজে স্টেডিয়ামে প্রবেশের চেষ্টা করেন কিন্তু স্টেডিয়ামের নিরাপত্তারক্ষীর হাতে ধরা পড়ে যান। গ্রেপ্তার করা হলে তিন দিন পর জামিনে মুক্তি পান। তাঁর বিরুদ্ধে আনা হয়, ‘জনসমক্ষে হিজাব ছাড়া আসার’ মামলা।

সাহার আদালতে জানতে পারে, এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে ছয় মাস থেকে দুই বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে। রাষ্টের চাপিয়ে দেয়া সেই দন্ড থেকে নিজেকে বাঁচাতে গায়ে গ্যাসোলিন ঢেলে আগুন দেন সাহার। পরে গত সোমবার হাসপাতালে মারা যান তিনি। লন্ডনভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এসব তথ্য জানিয়েছে।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে ইরান। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে থাকা ইরানিরা সাহারাকে ‘ব্লু গার্ল’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে স্টেডিয়ামে নারীদের প্রবেশাধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছে। এছাড়া এইচআরডব্লিউ এবং অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল—দুটি প্রতিষ্ঠানই ইরানে এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে পদক্ষেপ নিতে ফিফার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

ইরানে ১৯৭৯ সালে ইসলামি বিপ্লবের পর ১৯৮১ সাল থেকে স্টেডিয়ামে নারীদের প্রবেশ বন্ধ হয়ে যায়। এরপর থেকে ফুটবল খেলা দেখার জন্য অনেক নারীই স্টেডিয়ামে প্রবেশের চেষ্টা করেছেন, কিন্তু ব্যর্থ হয়েছেন। সর্বশেষ চেষ্টা করেন একজন সাহার খোদাইরি।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close