দেশবাংলা

বিনা খরচে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে চলেছে ‘আলোর কনা’

নীলফামারীর জলঢাকার এক যুবক গড়ে তুলেছেন ‘আলোর কনা’ নামে একটি সংগঠন। সেখানে গত চার বছর ধরে বন্ধুদের নিয়ে হাজারো শিশুকে বিনা খরচে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন। এছাড়াও অন্য প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতেও পড়াচ্ছেন তারা।

এতে, শিশুরা বড় হওয়ায় স্বপ্ন দেখছেন। স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

নীলফামারীর জলঢাকা পৌরসভায় চালের খুচরা দোকানী ফুরাদ হোসেন। সংসার চালানোর পাশাপাশি নিজের লেখাপড়াটাও চালিয়ে নিচ্ছেন। অভাবের তাড়নায় নিজের পাঁচ বড় ভাইকে প্রাথমিক শিক্ষা থেকে ঝড়ে পড়তে দেখে সিদ্ধান্ত নেন, শিক্ষায় সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলবেন তিনি।

এ লক্ষ্যে ২০১৫ সালে গড়ে তোলেন ‘আলোর কনা’ নামে একটি সংগঠন। পরে তার বন্ধুদের নিয়ে এলাকার দরিদ্র শিশুদের বিনা খরচে শিক্ষা ও খাদ্য বিতরণের কাজ করে যাচ্ছেন। এতে শিশুরা বড় হওয়ার স্বপ্ন দেখছে।

নীলফামারীর নেকবক্ত সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লায়লা বেগম বলেন, এ সংগঠনের সহযোগীতায় উপকার পাচ্ছে অন্য প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর শিক্ষকরাও।

উপজেলার গন্ডি পেরিয়ে সারাদেশে শিক্ষার আলো ছাড়িয়ে দেয়ার আশায় সরকারের সহায়তা চেয়েছেন, এ সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ফুরাদ হোসেন।

জলঢাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সুজাউদ্দৌলা বলছেন, সংগঠনটিকে পৃষ্ঠোপোষকতা দেয়া হলে তারা শিক্ষায় বড় অবদান রাখতে পারবেন।

এ সংগঠনটিকে আরও গতিশীল করতে সরকারি সহায়তার পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান সচেতন নাগরিকসহ এলাকাবাসীর।

 আলফাজ আল মামুন, নীলফামারী প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close