দেশবাংলা

চিকিৎসক সংকটে ইসলামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

চিকিৎসক সংকটে ভেঙ্গে পড়েছে জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম। যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের চরাঞ্চলের প্রায় ৪ লাখ মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে ৫০ শয্যার এ হাসপাতালে পর্যাপ্ত ডাক্তার না থাকায় রোগীর ভীড় সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে।

লোকবল সংকটে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে এ হাসপাতালের অপারেশন কার্যক্রমও। অন্যদিকে কাঙ্খিত সেবা না পেয়ে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এই হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের।

ইসলামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীদের এ ভীড় নিত্যদিনের। চিকিৎসক সংকটে রোগীর চাপ সামলাতে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে উপ-সহকারি কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারদের দিয়ে।

৫০ শয্যার এ হাসপাতালে ৩৩ জন চিকিৎসকের পদের বিপরীতে পদায়ন রয়েছে ১১ জনের। তারমধ্যে ৫ জন রয়েছেন বিভিন্ন বিভাগে ডেপুটেশনে। অবশিষ্ট ৬ চিকিৎসকের মধ্যে  বেশিরভাগ সময়ই বিভিন্ন প্রশিক্ষণে অংশ নিতে অনুপস্থিত থাকেন ২/৩ জন চিকিৎসক।

ফলে যমুনা ও ব্রহ্মপত্রের চরাঞ্চলের ১২টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার নিয়ে গঠিত ইসলামপুর উপজেলার প্রায় ৪ লাখ মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিতে গিয়ে পড়তে হয় চরম ভোগান্তিতে। একসময় এ হাসপাতালে সিজারিয়ানসহ অন্যান্য অপারেশন নিয়মিত হলেও চিকিৎসক সংকটে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ অপারেশন কার্যক্রমও।

কাঙ্খিত সেবা না পেয়ে দুর্ভোগের শিকার রোগীদের যেতে হয় বাইরের কোন ক্লিনিক অথবা আড়াইশ শয্যার জামালপুর সদর হাসাপাতালে। এতে চিকিৎসা খরচ বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়তে হচ্ছে চরাঞ্চলের নিন্ম আয়ের মানুষদের।

এছাড়া কার্ডিওলজি ও নিওরোজলি চিকিৎসা সেবায় কোন ব্যবস্থা না থাকায় সাংবাদিক পিতা মকবুল হোসেন মেম্বার সহ অকালেই ঝরে গেছে অনেক প্রাণ। স্বাস্থ্য সেবা নিয়ে ভোগান্তি থেকে মুক্তি পেতে দ্রুত চিকিৎসক নিয়োগের দাবি তাদের।

চিকিৎসক সংকটের কথা স্বীকার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত কর্মকর্তা ডাঃ একেএম শহীদুর রহমান জানান, রোগীদের সেবা দিতে মেডিকেল অফিসারদের সহায়তায় উপ সহকারি কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারদের দিয়েও চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। চিকিৎসক সংকটের কথা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। নতুন ডাক্তার নিয়োগ হলে সমস্যার সমাধান হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

বন্যা ও নদী ভাঙ্গন কবলিত উপজেলা হিসেবে পরিচিত ইসলামপুর। যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের চরাঞ্চল নিয়ে গঠিত এ উপজেলার বেশিরভাগ মানুষই দরিদ্র। চরাঞ্চলের ৪ লক্ষাধিক মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে দ্রুত চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে এমনটাই প্রত্যাশা এঅঞ্চলের মানুষের।

লিয়াকত হোসাইন লায়ন, ইসলামপুর-জামালপুর

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close