দেশবাংলা

১২টি জলদস্যু বাহিনীর ৯৬ সদস্যের অস্ত্রসহ আত্মসমর্পণ

কক্সবাজারের মহেশখালীতে ১২টি জলদস্যু বাহিনীর ৯৬ জন সদস্য অস্ত্রসহ আত্মসমর্পণ করেছেন। শনিবার দুপুরে মহেশখালীর কালারমারছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তবে অস্ত্র সমর্পণকারীদের স্বাগত জানিয়ে, যারা এখনও আত্মসমর্পন করেনি তাদেরও দ্রুত আত্মসমর্পনের আহবান জানান তিনি।

আত্মসমর্পন অনুষ্ঠানে ১২টি বাহিনীর ৯৬ জন জলদস্যু ও অস্ত্রকারিগর আত্মসমর্পন করেন।একই সাথে জলদস্যুদের কাছে মজুদ থাকা ১৩টি রাইফেল, ১টি দুইনলা বন্দুক, ১শ ৪১টি একনলা বন্দুক, ২৮টি রাইফেলের গুলি ও ২শ ৫৫টি কার্তুজ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে জমা দেয়া হয়। এছাড়া বিপুল পরিমাণ বিভিন্নরকম অস্ত্র তৈরীর সরাঞ্জামাদি হস্তান্তর করা হয়।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, পুলিশের মহাপরিদর্শক মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী,চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি গোলাম ফারুক, চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক,ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক আশরাফুল আফসার,পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেনসহ অন্যরা।

স্থানীয়রা বলছেন, জলদস্যুবাহিনী ও অস্ত্র কারিগররা আত্মসমর্পন করায় এলাকায় কিছুটা হলেও শান্তি ফিরে আসবে। তবে এখনো যারা আত্মসমর্পন করেনি তাদের আইনের আওতায় আনা হলে উপকুলে পুরোপুরি শান্তি ফিরে আসবে।

পরে আয়ুব বাহিনী, বদাইয়া বাহিনী, গুরাকালু বাহিনী, কালা জাহাঙ্গীর বাহিনী, সিরাজ বাহিনীসহ ১২টি বাহিনীর ৯৬জন জলদস্যু ও অস্ত্র কারিগরের প্রত্যেককে অস্ত্রের বিপরীতে ফুল তুলে দেয়া হয়।

 মাহবুব রোকন, কক্সবাজার উপকূলীয় প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close