অন্যান্যবাংলাদেশবিশ্ববাংলা

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার উন্মুক্ত হওয়া নিয়ে ধোঁয়াশা

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার উন্মুক্ত হওয়া নিয়ে ধোঁয়াশা থেকেই গেল। বাংলাদেশের সাথে বৈঠক বাতিল করে, ঢাকার পরিবর্তে দিল্লিতে মালয়েশিয়ার মন্ত্রী। গত রোববার ছিল দুই দেশের যৌথ কমিটির বৈঠকের নির্ধারিত তারিখ। কিন্তু হঠাৎ করে বৈঠকটি স্থগিত করে মালয়েশিয়া।

এ ব্যাপারে ঢাকা বলছে, বৈঠক স্থগিতের বিস্তারিত কারণ জানা যায়নি। তবে বাংলাদেশ সফর বাতিল করে বর্তমানে ভারত সফরে রয়েছেন মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী এম কুলাসেগারান।

ঢাকা ও কুয়ালালামপুর সূত্র বলছে, বাংলাদেশ থেকে স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় কর্মী নিয়োগে মালয়েশিয়ার অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক মহলের চাপ রয়েছে। এ কারণেই মূলত আরও সময় নিচ্ছে দেশটি।

বৈঠক বাতিলের বিষয়ে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা  বলেন, তবে আশা করছি শিগগিরই বৈঠকের তারিখ পুনর্নির্ধারণ হবে।’

এ বিষয়ে বায়রার মহাসচিব শামীম আহমেদ চৌধুরী নোমান বলেন, ‘মালয়েশিয়ার অভ্যন্তরীণ বারণেই বৈঠকটি আপাতত স্থগিত হয়েছে। সুনির্দিষ্ট কারণ জানা যায়নি। ‘দুই দেশের মধ্যে কাজ হবে- এটা তো সিদ্ধান্ত হয়েই আছে। কিন্তু একটা প্রটোকল স্বাক্ষর হবে, সেই ব্যাপারটা নিয়ে দেরি হচ্ছে।

আশা করছি, ডিসেম্বর মাসের মধ্যে তারিখ পুনরায় নির্ধারিত হবে। ‘মালয়েশিয়ার কেবিনেট বলে দিয়েছে, তাদের ছয় লাখ কর্মী প্রয়োজন। সুতরাং সে দেশে কর্মী প্রয়োজন, এটা নিশ্চিত।

এদিকে, বাংলাদেশের জনশক্তি রফতানিকারকদের প্রতিষ্ঠান বায়রার কয়েকজন নেতা জানান, দুদেশের অসাধু ব্যবসায়ীদের প্রভাবেই আবারও ঝুলে গেছে গুরুত্বপূর্ণ শ্রমবাজারটির উন্মুক্ত হওয়ার প্রক্রিয়া।

এর আগে, নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার নিয়ে সুখবর আসছে দেশটি সফর শেষে এমন ঘোষণা দিয়েছিলেন খোদ প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ।

দুই দেশের মধ্যে যেসব আলোচনা হয়েছে, তা চূড়ান্ত করতে ২৪ ও ২৫ নভেম্বর জয়েন্ট ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক হবার কথা ছিলো।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close