দেশবাংলা

গুচ্ছগ্রামে ঘর দেয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

বগুড়া সোনাতলার জোরগাছা ইউপি চেয়ারম্যান ও তার লোকজনের বিরুদ্ধে গুচ্ছগ্রামে ঘর দেয়ার কথা বলে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ প্রকল্প থেকে যমুনার করাল গ্রাসে সর্বশান্ত হওয়া গরীব-অসহায়দের কাছ থেকে টাকা নিয়েছে চেয়ারম্যান ও তার লোকজন। তাদের টাকা ফেরত দেয়ার দাবি ভুক্তভোগীদের। আর সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বগুড়া জেলার সোনাতলা উপজেলার জোরগাছা ইউপি চেয়ারম্যান রুস্তম আলী মন্ডল। তার বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ প্রকল্প গুচ্ছগ্রামের ঘর দেয়ার কথা বলে যমুনা চরের বানভাসীদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এসব মানুষ স্থায়ী একটি ঘর পাওয়ার আশায়, অন্যের বাড়ীতে কাজ করে উপার্জিত অর্থ এবং কেউ কেউ ২০টাকা হারে চড়া সুদে টাকা নিয়ে দিয়েছেন চেয়ারম্যান, তার ছেলে শিপন মিয়া এবং তার সহযোগী শামিমকে।

বর্তমানে এসব বানভাসি মানুষ ঘর না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। তার বিরুদ্ধে আরও দুর্নীতির কথা জানালেন, স্থানীয় জন প্রতিনিধিরাও। আর অভিযুক্ত চেয়ারম্যান বলছেন ভিন্ন কথা।

এদিকে, অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান, সোনাতলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিকুর আলম।

গুচ্ছগ্রামে ঘর পাওয়ার জন্য চেয়ারম্যানকে দেয়া অর্থ ফিরে পেলে ঋনমুক্ত হয়ে স্বচ্ছল জীবন যাপন করতে চায় এসব ভুমিহীন মানুষ।

তানিয়া ইসলাম, বগুড়া প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close