দেশবাংলা

ইটাখোলা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ

অভিযোগের অন্ত নেই জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল ইটাখোলা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জুলফিকার আলী চৌধুরীর বিরুদ্ধে। অনিয়ম, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, অর্থ আত্মসাতসহ নানা কারণে উন্নয়ন বিঘ্নিত হচ্ছে, ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রমও।

এমন কথা বলছেন প্রতিষ্ঠানটির বর্তমান ও সাবেক শিক্ষকরা। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া আশ্বাস দিলেন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা।

১৯৬৭ সালে স্থাপিত ক্ষেতলাল উপজেলার ইটাখোলা উচ্চ বিদ্যালয়। বর্তমানে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি জুলফিকার আলী চৌধুরীর অব্যবস্থাপনা সেচ্ছাচারিতায় মুখ থুবড়ে পড়ার আশঙ্কায় প্রতিষ্ঠানটি, অভিযোগ সংশ্লিষ্টদের।

প্রতিষ্ঠানের পুকুর, দোকানসহ প্রায় ৪০ বিঘা কৃষিজমি থাকা সত্ত্বেও নেই কোন উন্নয়ন। নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে সভাপতি দীর্ঘদিন থেকে নিজের পছন্দের ব্যক্তিদের জমি, পুকুর ইজারা  দিচ্ছেন। দোকান ভাড়ার অর্থ বিদ্যালয়ের ব্যাংক এ্যাকাউন্টেও জমা দেয়া হচ্ছে না।

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে দুর্নীতি আর অনিয়মের অভিযোগ করলেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারি প্রধান শিক্ষক। তবে অভিযুক্ত ব্যক্তি বলছেন অন্য কথা।

প্রতিষ্ঠানের কোনো অনিয়ম হলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সুফিউল্লাহ সরকার। এদিকে, বিদ্যালয়টির কার্যক্রমে স্বচ্ছতা প্রতিষ্ঠার ওপর জোর দিলেন এর বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীদের।

রেজাউল করিম, জয়পুরহাট প্রতিনিধি 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close