দুর্ঘটনাবাংলাদেশ

রাজধানীর কেরানীগঞ্জের প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩

রাজধানীর কেরানীগঞ্জের চুনকুটিয়া এলাকায় অবস্থিত প্রাইম পেট অ্যান্ড প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ জনে দাঁড়িয়েছে। বাকি ২২ জন ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি রয়েছেন। যারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তাদের অবস্থাও আশংকাজনক। দুর্ঘটনার জন্য কারখানার অ-ব্যবস্থাপনাকেই দায়ী করেছেন,স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন।

বুধবার বিকেল ৪টা ৩৫ মিনিটে কেরানীগঞ্জের চুনকুটিয়া এলাকায় অবস্থিত প্রাইম পেট অ্যান্ড প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের কারখানায় আগুন লাগে। ঘটনাস্থলে এক জন নিহত হন। পরে ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিটের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এসময় অন্তত ৩৭ জন দগ্ধ হন। এদের মধ্যে ৩৪ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে হাসাপতালে আনা হয়। সেখানেই একে একে আসতে থাকে মৃত্যুর খবর।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখন পর্যন্ত নিহতরা হলেন- ইমরান, বাবুল, রায়হান, খালেক, সালাউদ্দিন, সুজন, জিনারুল ইসলাম, আলম, জাকির হোসেন, ফয়সাল ও জাহাঙ্গীর।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন জানিয়েছেন অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে যাওয়াদের অবস্থা খুবই করুণ।

আহতদের দেখতে হাসপাতালে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এমন দুর্ঘটনার জন্য সরকারি কিছু সংস্থা ও মালিকপক্ষ দায়ী করেন তিনি।

এ ঘটনার শিকার ব্যক্তিদের ক্ষতিপূরণ দিতে কারখানার মালিকদের বাধ্য করার কথা জানান মন্ত্রী।

বাংলাটিভি/শহীদ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close