দেশবাংলা

ভোলায় খামারের বর্জ্য ফেলা হচ্ছে খালে

ভোলায় নিয়ম-নীতি না মেনে গড়ে উঠছে মুরগীর খামার। আর খামারের বর্জ্য ফেলা হচ্ছে বিভিন্ন খালে। এতে দূষিত হচ্ছে খালের পানি। ফলে দূর্গন্ধে একদিকে মানুষের জীবন যাপনে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। অন্যদিকে খালের পানি ব্যবহার করায় জমির ফসল ও ঘেরের মাছ নষ্ট হচ্ছে। পরিবেশ দূর্ষণ না করার জন্য খামারীদের নির্দেশ দিলেও মানছেন না তারা।

ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া তুলাতলি এলাকাটি কৃষি ও মৎস্য চাষে বিখ্যাত। এখানকার মানুষ কৃষি ও মৎস্য চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। কৃষি ও মৎস্য চাষের ওপর জাতীয় পুরস্কারও পেয়েছেন অনেকে।

সম্প্রতি এ এলাকায় কৃষিজমি ও মৎস্য খামারের পাশে কিছু মুরগীর খামার গড়ে উঠেছে। কোনো প্রকার নিময় নীতি না মেনে খামারীরা দূষিত বর্জ্য ফেলছেন রাস্তার পাশে ও বিভিন্ন খালে। বর্জ্য ফেলায় দূষিত হচ্ছে, পরিবেশ।

এতে দূর্গন্ধে বসবাস করতে পারছেন না আশ-পাশের মানুষ। এছাড়া খালের পানি কৃষি জমি ও মৎস্য খামারে ব্যবহার করায় নষ্ট হচ্ছে চাষ।গুনতে হচ্ছে মোটা অংকের লোকসান।

এদিকে পরিবেশ দূষিত করার অভিযোগে খামারে জরিমানা করা হলেও থামছেন না খামারীরা। তাদের দাবি, তারা সুন্দর পরিবেশে খামার পরিচালিত করছেন। এলাকাবাসীর সাথে তাদের সু-সম্পর্ক।

তবে সরকারি নির্দেশনা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থ গ্রহণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি পরিবেশ দূষণের বিরুদ্ধে কঠোর রয়েছেন বলে জানান, পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা সহকারী পরিচালক আব্দুল মালেক মিয়া।

দ্রুত এসব মুরগীর খামার অন্যস্থানে সরিয়ে নিয়ে পরিবেশ দূষণের হাত থেকে মানুষকে রক্ষার দাবি এলাকাবাসীর।

জুয়েল সাহা, ভোলা প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close