অন্যান্যবাংলাদেশ

অনলাইন ক্লাসের সুযোগ পাচ্ছে না প্রান্তিক শিক্ষার্থীরা

করোনার সংকটকালে সারাদেশের স্কুল বন্ধে, অনলাইন ক্লাসের তেমন সুযোগ পাচ্ছে না রাজধানীর বাইরের শিক্ষার্থীরা। মূলত অনলাইনে ক্লাসের জন্য সর্বস্তরে প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা না থাকায় ভার্চুয়াল শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, প্রান্তিক স্কুলের শিক্ষার্থীরা।

এছাড়া শহরাঞ্চলের বাইরে ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক অতটা শক্তিশালী না হওয়ায়, বহুমাত্রিক ব্যবহারে চাপও পড়ছে। চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কাজ করছে প্রাথমিক শিক্ষা ও আইসিটি বিভাগ।

করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধে, শিশুদের লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার জন্য বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে শুরু হয় অনলাইন ক্লাস। এতে ঘরে বসেই  ক্লাস করতে পারছে শিক্ষার্থীরা। ফলে কিছুটা হলেও ক্ষতি পুষিয়ে নিচ্ছে শিক্ষার্থীরা। তবে রাজধানী ও বড় শহরগুলোর বাইরের বিদ্যালয়গুলোর শিক্ষার্থীদের বেলায় সেই চিত্র ভিন্নরকম।

গ্রামীণ শিক্ষার্থীরা অনলাইন ক্লাস সেবা তেমন একটা পাচ্ছে না প্রয়োজনীয় ডিভাইস সুবিধার অভাবে। অনেক ক্ষেত্রে স্কুলের পক্ষ থেকে অনলাইনে ক্লাস চালানো হলেও সব শিক্ষার্থীরা তাতে ভার্চুয়ালী অংশ নিতে পারছে না।

করোনাকালীন সময়ে সকল শিক্ষার্থীকে শিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় আনাকে বড় চ্যালেঞ্জ হিসাবে দেখছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। অনলাইন পাঠদানে ধারাবাহিকতা না থাকায় সংশ্লিষ্টদের নজরদারির অভাবকে দায়ী করেছেন শিক্ষা সচেতন বিশিষ্টজনেরা।

এদিকে, করোনাকালে সরকারের অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমে গতি আনতে, প্রান্তিক পর্যায়েও ইন্টারনেটে নানামুখী পদক্ষেপ নেয়ার কথা বলছে, আইসিটি বিভাগ।

শহরাঞ্চলের মতো গ্রামীন শিক্ষার্থীরাও যাতে অনলাইন শিক্ষার পূর্ণ সুবিধা পায় তা নিশ্চিতের আহবান অভিভাবকদের।

আরমান কায়সার, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button