জনদুর্ভোগবাংলাদেশ

নিয়ন্ত্রক সংস্থার সমন্বয়হীনতায় মাশুল দিচ্ছে ক্রেতারা

নিত্যপণ্যের বাজারে ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য আর নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর সমন্বয়হীনতার মাশুল দিচ্ছেন ক্রেতারা। সামান্য জেল-জরিমানায় সীমাবদ্ধ না রেখে, অসাধু ব্যবসায়ীদের কঠোর সাজা নিশ্চিত করলে বাজার স্থিতিশীল থাকবে বলে মনে করেন কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ।

আর, ভোক্তা অধিকার রক্ষায় সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোর সমন্বয়ে আলাদা মন্ত্রণালয় গঠনের বিকল্প নেই বলে মত দিয়েছেন কনজুমারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ- ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান।

রাজধানীর বাজারগুলোতে শীতের সবজির আগাম সরবরাহ অতীতের যেকোনও সময়ের তুলনায় বেশি। অথচ সেই তুলনায় কমেনি দাম। এর মূল্যবৃদ্ধির পেছনে দীর্ঘস্থায়ী বন্যার অজুহাত দিচ্ছেন কেউ কেউ। তবে বাজারের যোগান তা প্রমাণ করে না বলে মনে করেন ক্রেতারা। উর্ধ্বমুখী বাজার দরে তারা দিশেহারা।

বাজারের চাপ সামলাতে টিসিবি পণ্য বিক্রির ট্রাকে ভিড় করছেন খেটে খাওয়া নিম্নআয়ের মানুষেরা। তবে, তাতেও পূরণ হচ্ছে না তাদের চাহিদা।

কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ জানালেন, অসাধু ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য বন্ধে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের পরিধি ও সাজা বাড়ালে বাজার অনেকটা স্থিতিশীল থাকবে। আর বাজার নিয়ন্ত্রণে নজরদারি বাড়ানোর পাশাপাশি, আইনের কঠোর প্রয়োগের পরামর্শ দেন ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান।

নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থাগুলোর সমন্বয়ও এ ক্ষেত্রে জরুরী বলে মত দেন তিনি। মুক্তবাজার অর্থনীতির মানে ‘যা খুশী, তাই নয়’- মন্তব্য করে, সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোর সক্ষমতা বাড়ানোরও পরামর্শ দেন, এই ক্রেতা স্বার্থ সংরক্ষক।

হাকিম মোড়ল, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button