অপরাধআইন-বিচারজনদুর্ভোগবাংলাদেশ

রাজধানীতে কয়েক জায়গায় বাসে অগ্নিসংযোগ

রাজধানীতে ছয়টি বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার দপুরে পৃথক পৃথক এলাকায় এসব বাসে আগুন দেওয়া হয়। এর মধ্যে ফায়ার সার্ভিস জানায়, ছয়টি বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। তবে  কোথাও কেউ হতাহত হয়নি।

ফায়ার সার্ভিসের এক  কর্মকর্তা বলেন প্রথম আগুনের ঘটনা ঘটে শাহজাহানপুরে একটি বাসে। এরপর কাঁটাবন, মতিঝিলের মধুমিতা সিনেমা হলের কাছে, গুলিস্তানে গোলাপ শাহ মাজার এলাকা, বংশালের নয়াবাজার ও প্রেসক্লাবের কাছে বাসে আগুন দেওয়া হয়। প্রতিটি ঘটনায় ফায়ার সার্ভিস আগুন নেভানোর কাজ করেছে। এর মধ্যে কাঁটাবনে বাসটি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়।

এদিকে ঢাকা মহানগর পুলিশ জানায়, দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে দেড়টার মধ্যে বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে নয়াপল্টনে আনন্দ কমিউনিটি সেন্টারের কাছে পার্কিং করা একটি স্টাফ বাস, মতিঝিলে মধুমিতা সিনেমা হলের পেছনে একটি পাবলিক বাসে, গুলিস্তানে পীর ইয়ামিনি মার্কেটের সামনে বাসে, প্রেসক্লাব এলাকা ও কাঁটাবনে বাসে আগুন লাগে।

পুলিশের ধারণা, যাত্রীবেশে কেউ বাসগুলোতে আগুন লাগিয়ে নেমে গেছে। কে বা কারা লাগিয়েছে, কেন লাগিয়েছে, তার কারণ জানা যায়নি।

ডিএমপি জানায় প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে নাশকতা সৃষ্টির লক্ষ্যে দুর্বৃত্তরা পরিকল্পিতভাবে বাসে আগুন দিয়েছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ, প্রত্যক্ষদর্শী ও বিভিন্ন স্থানে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় জড়িত ব্যক্তিদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, ঢাকা-১৮ আসনে চলমান উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে এই ঘটনা ঘটেছে কি না, সেটাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

একজন  প্রত্যক্ষদর্শী জানান, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে রজনীগন্ধা পরিবহনের একটি বাসে আগুন ধরে গেলে যাত্রীরা তড়িঘড়ি করে নেমে যান। কে বা কারা কীভাবে আগুন দিয়েছে, তাৎক্ষণিক বোঝা যায়নি।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মামুন আর রশীদ  অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিরা কাঁটাবন ও প্রেসক্লাব এলাকায় এই দুটি বাসে আগুন দিয়েছে৷ এই ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে৷

বাংলাটিভি/শহীদ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button