অন্যান্যবাংলাদেশ

মাস্ক ব্যবহারে এখনো অনীহা, সতর্কতার তাগিদ

শীতে করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা নিয়ে, শঙ্কায় আছে বাংলাদেশ। করোনার সংক্রমণ রোধে মাস্ক পরা সামাজিক দূরত্ব বাধ্যতামূলক করা হলেও, অনেকেই মানছেন না। বাজার, রেস্তোরাঁ, দোকানসহ কোথাও যেন সতর্কতার বালাই নেয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এখনি সচেতন না হলে আগামীতে পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিতে পারে।

শীত মৌসুমে করোনার দ্বিতীয় ধাক্কায় নাকাল আমেরিকা-ইউরোপসহ বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চল। বরাবরই শঙ্কার কথা জানিয়ে আসছিলেন বিশেষজ্ঞরা। এরই মধ্যে দেশেও বাড়তে শুরু করেছে করোনায় মৃত্যু ও নতুন সংক্রমণের হার। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, গেল দুই মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা এই সপ্তাহে।

করোনার শীতের ব্যাপকতা নিয়ে বিশেষজ্ঞরা আগে থেকেই সতর্ক করলেও। স্বাস্থ্যবিধি মানার যনে বালাই নেই। অনেকে মাস্ক ব্যবহার করলেই অধিকাংশ মানুষ নিয়মকেও যেন, বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে চলাচল করছে স্বাভাবিক সময়ের মতোই।

রাস্তাঘাট, বাজার, দোকানপাট কিংবা চায়ের আড্ডায়- কোথাও নেই স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা। বেশিরভাগই না পরছে মাস্ক, না মানছে সামাজিক দূরত্বটুকু।

মাস্ক পরেন না কেন? এমন কথা জানতে চাইলে- কেউ এড়িয়ে যাচ্ছেন, কেউ বা বিরক্ত; আবার কারো কারো রয়েছে নানান অজুহাত।

এদিকে, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শীতে করোনার ভয়াবহতা থেকে বাঁচতে, এখনি সচেতন হওয়া জরুরি।  স্বাস্থ্যবিধি না মানলে পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ।

মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতা নিশ্চিতে, দেশের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসেবে জরিমানাও করা হচ্ছে। তবে সর্বস্তরে মানুষের মাঝে, স্বাস্থ্য সুরক্ষার দায়িত্ববোধ না জাগলে, করোনা প্রতিরোধ কঠিন হবে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

বুলবুল আহামেদ, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button