বাংলাদেশঅন্যান্যঅপরাধআইন-বিচারজনদুর্ভোগদুর্ঘটনানির্বাচন

আলোচনা সমালোচনায় ছিল ২০২০ সাল

২০১৯ সালে দেশের রাজনীতির মাঠ অনেকটাই নিস্তরঙ্গ ছিল। তা পেরিয়ে ২০২০ সালের ‍শুরুতেই দেখা দেয় কোভিড-১৯ মহামারী। আর তাতে জীবন বাঁচাতে রাজনীতি ঢুকে যায় ঘরে। মিছিল, সমাবেশ, হাত মেলানোর মতো জনসংযোগের চেনা দৃশ্যগুলোও হয়ে যায় উধাও। মার্চে দেশে করোনা মহামারীর বিস্তার ঠেকাতে সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর, তৈরি করা হয় অবরুদ্ধ অবস্থা;  সমাবেশের ওপর আসে নিষেধাজ্ঞা।  তবে, এর মধ্যেও বেশকিছু আলোচিত ঘটনার পাশাপাশি, নানাবিধ অপরাধকাণ্ড ঘটে।  এ ছাড়া বিগত বছরের বিভিন্ন আলোচিত মামলার রায়ও ঘোষিত হয়  এ বছরই।

২০২০ সালের মার্চ মাসের ‍শুরুতে দেশে ধরা পড়ে কোভিড-১৯ মহামারী। ফলে রাজনৈতিক নেতাদের কাজ ঘরে থেকে বক্তব্য-বিবৃতি দেওয়ার মধ্যে সীমাবদ্ধ হয়ে পড়ে। তবে সঙ্কটে পড়া মানুষের সহায়তায় বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মীদের তৎপরতা ছিল। নেতাদের রাজপথ ছেড়ে সভা-ওয়েবিনার নিয়ে ভার্চুয়াল জগতেই বেশি সময় কাটাতে দেখা গেছে।

অন্য সব নির্বাচন বন্ধ থাকলেও সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণ দেখিয়ে সংসদের কয়েকটি আসনের উপনির্বাচন মহামারীকালেও করেছে নির্বাচন কমিশন।  তাতে ভোটারদের তেমন সাড়া দেখা যায়নি।  বড় দলগুলোর অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত এসব নির্বাচনের বেশির ভাগেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ প্রার্থীরাই জয়ী হন। আর বিএনপি আগের মতোই কারচুপির অভিযোগ তোলে।

বছরের মাঝামাঝি সময়ে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাটকলগুলো বন্ধ করে দেওয়ার পর সরব হয়ে ওঠে বাম দলগুলো। তবে তা মিছিল-সমাবেশ-মানববন্ধনেই সীমিত ছিল।  এ দলগুলো ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনেও সক্রিয় হয়ে উঠেছিল; তবে সরকার ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান করার পর সেই আন্দোলনও স্তিমিত হয়ে পড়ে।

বেশ কয়েক বছর পর হেফাজতে ইসলামের ব্যানারে ইসলামী দলগুলো হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সালামের কার্টুন প্রকাশ নিয়ে ফ্রান্সবিরোধী বিক্ষোভে নেমে রাজপথে উত্তাপ ছড়ানোর চেষ্টা করে।  সেটি ব্যর্থ হওয়ার পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য অপসারণের দাবি তুলে বছরের শেষভাগে রাজনৈতিক অঙ্গন উত্তপ্ত করে দলটি।

বছর জুড়ে কয়েকটি ধর্ষণের ঘটনা মানুষের মধ্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার জন্ম দেয়।  বছরের শুরুতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনায় ব্যাপক বিক্ষোভ হয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে। নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় এক নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনা ঘটে সেপ্টেম্বরে। সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে এক তরুণী ধর্ষণের ঘটনায় দেশজুড়ে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

বছরের আলোচিত ঘটনার মধ্যে একটা হত্যাকাণ্ড পুলিশ প্রশাসনে ব্যাপক রদবদল ঘটায়।

সাবেক সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান ৩১শে জুলাই কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের গুলিতে নিহত হন।  হত্যার অভিযোগে টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ ১৫ জনকে আসামী করে চার্জশীট দেয়া হয়। এদের ১৪ জন বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।

২৯ অবক্টোবর লালমনিরহাটে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করে তার মরদেহ পুড়িয়ে দেয়ার ঘটনা হতবাক করে দেশের বিবেকবান মানুষকে।

বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলা, ফেনীর নুসরাত হত্যা মামলা ও থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমের সাজা, ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলায় ধর্ষক মজনুর সাজাসহ বেশকিছু আলোচিত মামলার রায়ও আসে এ বছর। এ ছাড়া রিজেন্ট হাসপাতালের সাহেদ, জেকেজি চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা আরিফ চৌধুরী, যুবলীগ নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া,এমপি পাপুল, গোল্ডেন মনিরসহ বহু অপরাধীর কুকর্মও প্রকাশ পায় এ বছরই।

 

বাংলাটিভি/শহীদ

 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button