দেশবাংলা

অস্ত্রের মুখে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

ঠাকুরগাঁওয়ে অস্ত্রের মুখে ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার (৩ মার্চ) দুপুরে সদর উপজেলার ৫ নং বালিয়া ইউনিয়নের কিসমত শুখানপুকুরী মাঝপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, একই গ্রামের বাসিন্দা ইসারুল ইসলামের একমাত্র ছেলে রায়হান (১৮) তাদের বাড়ীতে তার মা ডেকেছে বলে মেয়েটিকে নিয়ে যায়। এরপর বাড়ীতে কেউ না থাকার সুযোগে অস্ত্রের মুখে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।

মেয়েটি ধর্ষকের হাত থেকে বাঁচার জন্য চেষ্টা করলে তাকে দেশীয় চাকু দিয়ে মেরে ফেলার ভয় দেখায়। এরপর স্থানীয় এক বাসিন্দা বিষয়টি দেখে ফেললে মেয়েটির বাবাকে খবর দিলে তার বাবা ঘটনা স্থলে গিয়ে মেয়েটি উদ্ধার করে। পরে মেয়েটির চিকিৎসার জন্য ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মেয়েটির বাবা জানান, বুধবার দুপুরে আমরা সবাই মাঠে কাজ করতে যাই। এই সুযোগে আমার মেয়েকে কৌশল করে রায়হান তার বাড়ীতে নিয়ে যায়। এ সময় তার বাড়ীতে কেউ না থাকার সুযোগে আমার মেয়েকে ধর্ষণ করে। আমাকে স্থানীয় এক ব্যক্তি খবর দিয়ে বলে রায়হানের বাড়ীতে যাও।

আমি তারাতাড়ি তার বাড়ীতে গিয়ে দেখি আমার মেয়ে রায়হানের ঘরে উলোঙ্গ অবস্থায় আছে। পরে ঘরের দরজা ভেঙ্গে আমার মেয়েকে উদ্ধার করি। আমি প্রশাসনের কাছে বিচার চাই এবং ধর্ষকের সর্ব্বোচ্চ শাস্তি চাই।

এ বিষয়ে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তানভীরুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে একটি মামলা হয়েছে। আসামিকে ধরতে আমাদের অভিযান চলতেছে। তবে অভিযোগের বিষয়ে অভিযুক্ত রায়হানের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা হলে কাউকে পাওয়া যায়নি।

মামুনুর রশিদ, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button