বাংলাদেশঅন্যান্য

শান্তি প্রতিষ্ঠায় কাজ করছে দুই দেশ: মোদি

বাংলাদেশ সফরের শেষদিনে ব্যস্ত সময় পার করছেন, নরেন্দ্র মোদি। শনিবার দুপুরে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধে শ্রদ্ধা জানান, ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

এছাড়া সফরে সাতক্ষীরার যশোরেশ্বরী মন্দির এবং গোপালগঞ্জের ওড়াকান্দির ঠাকুরবাড়ির মতুয়া মন্দির পরিদর্শন ও প্রার্থনা করেন মোদি। এসময় সুধী সমাবেশে তিনি বলে, বিশ্ব শান্তি ও স্থিতিশলীয় প্রতিষ্ঠায় ভারত-বাংলাদেশ একযোগে কাজ করছে।

শনিবার বেলা ১১টা ৩৫মিনিটে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিস্থলে পৌঁছালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে অভ্যর্থনা জানান বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে, শ্রদ্ধা জানান ভারতের প্রধানমন্ত্রী। এসময় জাতির পিতার সমাধিস্থলে কিছু সময় নিরবে দাঁড়িয়ে থাকেন তিনি।

সেখানে বঙ্গবন্ধুর যাদুঘর ঘুরে দেখেন নরেন্দ্র মোদী। পরিদর্শন বইয়ে স্বাক্ষর করে বঙ্গবন্ধুর সমাধি কমপ্লেক্সে একটি বৃক্ষের চারা রোপন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। এরপর দুপুর সাড়ে ১২টার পর,গোপালগঞ্জের কাশিয়ানিতে ওড়াকান্দি গ্রামে পৌছান ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

সেখানে মতুয়া সম্প্রদায়ের ধর্মগুরু হরিচাঁদ ঠাকুর প্রতিষ্ঠিত ওড়াকান্দি মন্দির পরিদর্শ করে পূজা-অর্চনায় যোগ দেন মোদি। এরপর এক সুধী সমাবেশে মতুয়া সম্প্রদায়ের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তিনি।

এর আগে, সকালে সাতক্ষীরার যশোরেশ্বরী মন্দিরে যান ভারতের প্রধানমন্ত্রী। স্বাগত জানানোর পর মোদিকে মন্দিরে বরণ করে নেয় ভক্তরা। এসময় মন্দিরে পূজার আনুষ্ঠানিকতায় অংশ নিয়ে সতী দেবীকে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন নরেন্দ্র মোদী। যশোরেশ্বরীতে মন্ত্রপাঠ ও মন্দির পরিদর্শন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

পরে কালীর মন্দিরে পূজা দেন তিনি। এ সময় মন্ত্রপাঠ শুরু করেন পুরোহিত। প্রায় ১০ মিনিট ধরে চলে আনুষ্ঠানিকতা।  পরে ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে উত্তরীয় পরিয়ে দেয়া হয়। সেখানে ভারতীয় গণমাধ্যম এএনই কে বাংলাদেশ সফরে নিজের অনুভূতির কথা জানান মোদি।

হাকিম মোড়ল, বাংলা টিভি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button