নির্বাচনবাংলাদেশ

প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ৪ ডিসিকে ‍উড়োচিঠি

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে নিরপেক্ষ হওয়ার জন্য সতর্ক করে চার জেলা প্রশাসককে (ডিসি) বেনামে চিঠি দিয়ে হুমকি দেয়া হয়েছে। গত কয়েক দিনে এ জেলা প্রশাসকদের হুমকি দিয়ে ডাকযোগে চিঠি পাঠানো হয়েছে। হুমকি পাওয়া ডিসিরা হলেন; বাগেরহাটের তপন কুমার বিশ্বাস, ফরিদপুরের উম্মে সালমা তানজিয়া, বরগুনার কবির মাহমুদ ও সিরাজগঞ্জের কামরুন নাহার সিদ্দিকা।

ডাকযোগে বাগেরহাটের ডিসিকে পাঠানো ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘বর্তমান সময়ে আপনার সকল কার্যকলাপ তৎপরতা আপত্তিকর পক্ষপাতদুষ্টে দৃষ্ট। আপনি কি প্রজাতন্ত্রের? আওয়ামী লীগ কর্মী? আপনারা হয়ত সব খবর রাখেন না। নির্বাচনের আগে পরে কিছু তো হবে। কেউ বসে নেই, তাই আপনার প্রতি অনুরোধ আপনি আগামী তিনদিনের মধ্যে শতভাগ নিরপেক্ষ হয়ে যান। হতে হবে। অন্যথায় এ্যাকশন। আপনার পরিবার পরিজন, আত্মীয়স্বজন। এবার কৌশল পরিবর্তন, যেখানেই পাওয়া যাবে সেখানেই আক্রান্ত করা হবে। এবার আপনারাই (ডিসি) টার্গেট, এবার আর ছাড় দেয়া হবে না।’ চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘আপনার প্রতিদিনের তৎপরতা মনিটর হচ্ছে, আপনার অপরাধ দিনদিন ভারী হচ্ছে। তাই টার্গেট থেকে বাদ পড়তে নিজেকে শতভাগ নিরপেক্ষ প্রমাণ করুন। অন্যথায় এ্যাকশন।’

এই চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বাগেরহাট জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা তপন কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘আমার মনোবল ভেঙে দেয়ার জন্য এ চিঠিটি দেয়া হয়ে থাকতে পারে। আমি ভীত না হয়ে মনোবলকে শক্ত রেখে আগামী ৩০ ডিসেম্বর বাগেরহাটে একটি সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্পন্ন করব। আমাকে দেয়া হুমকির চিঠির বিষয়ে বাগেরহাটের পুলিশ সুপারকে জানানো হয়েছে। আমার সহকর্মীরাও বিষয়টি অবহিত। প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমরা সতর্ক রয়েছি।’

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়াকে গত বুধবার উড়ো চিঠির মাধ্যমে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে বলা হয়েছে, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরপেক্ষভাবে কাজ না করলে তাকে ও তার পরিবারের সদস্যদের জানমালের ক্ষতি করা হবে। জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া জানান, খামের ওপর ‘গোপনীয়’ লেখা চিঠিটি অফিসের সিএ’র মাধ্যমে তার হাতে পৌঁছে। লাল-সবুজ কালি দিয়ে লেখা চিঠিটি তদন্ত ও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার জন্য গোয়েন্দা সংস্থাসহ সংশ্লিষ্ট দফতরে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, চিঠিতে তাকেসহ তার পরিবারের সদস্যদের ক্ষতিসাধন করা হবে মর্মে হুমকি দেয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসক জানান, তিনি জেলা রিটার্নিং অফিসার হিসেবে মোটেও বিচলিত নন এ চিঠি পেয়ে। চিঠির নিচে ‘চলমান’ লেখা রয়েছে। এ থেকে অনুমান করা হচ্ছে আগামীতে এ জাতীয় চিঠি তার কাছে আসতে পারে।

বরগুনা জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও রিটার্নিং কর্মকর্তা কবির মাহমুদ উড়ো চিঠিতে হুমকির বিষয়ে জানান, বৃহস্পতিবার আমার নামে ডাকযোগে একটি চিঠি আসে। সেটি খুলে দেখতে পাই, বরগুনার দুটি সংসদীয় আসনের নির্বাচন নিরপেক্ষভাবে সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হলে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের ক্ষতিসাধনের জন্য হুমকি দেয়া হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো আইনি পদক্ষেপ নেয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দিকা ও তার পরিবারকে হুমকি দেয়া হয়েছে। বুধবার সকালে সিরাজগঞ্জ ডিসি অফিসের ঠিকানায় হুমকির এ চিঠিটি আসে। জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দিকা জানান, খাকি রঙের খামে এক পাতার এই চিঠিতে প্রেরকের নাম-ঠিকানা লেখা নেই। বিষয়টি পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। চিঠিতে বলা হয়েছে, আমার কর্মকাণ্ড তারা খেয়াল করছে। তিনদিনের মধ্যে আমি যদি ঠিক না হই তাহলে তারা আমাকে দেখে নেবে। শুধু আমাকে না আমার আত্মীয়-স্বজন ছেলে-মেয়ে ও সম্পত্তির উপর তারা নজর রাখছে। ঠিক না হয়ে গেলে তারা আক্রমণ চালাবে। চিঠির শেষের অংশে লেখা আছে চলমান।

বাংলাটিভি/এমআরকে

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close