বাংলাদেশ

বই মেলা শুরু হচ্ছে আজ; উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

বছর ঘুরে আবারো হাজির হলো বাংলার গর্বের ধন ভাষার মাস ফেব্রুয়ারি। ভাষা-সংগ্রাম ও আত্মমর্যাদার এই মাসের প্রথম দিনেই বই মেলা বাংলার নিয়মিত ঐতিহ্য রুপদান করছে বহু বছর ধরে। শুরু হচ্ছে বাঙালির প্রাণের মেলা, অমর একুশে গ্রন্থমেলা।

শুক্রবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টায় বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০১৯ এর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারপরেই সব বই-প্রেমীদের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে খোলা হবে গ্রন্থমেলার দ্বার।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। এছাড়া, বিশেষ অতিথি থাকবেন ভারতের বিখ্যাত কবি শঙ্খ ঘোষ ও মিশরের লেখক, গবেষক ও সাংবাদিক মোহসেন আল আরেশি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখবেন সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল। এছাড়া, স্বাগত ভাষণ দেবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী।

বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত এই বইমেলা চলবে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। আগত দর্শনার্থীদের জন্য মেলায় নেওয়া হয়েছে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকবে। তবে ছুটির দিন বেলা ১১ টা থেকে রাত ৯টা এবং ২১শে ফেব্রুয়ারি সকাল ৮ টা থেকে যথারীতি রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা চলবে। রাত সাড়ে ৮টার পর আর কেউ আর মেলায় প্রবেশ করতে পারবেন না।

নতুন অনেক কিছু সংযোজন করে অন্যান্য-বারের চেয়ে এবার আরও সুন্দর ও পরিশীলিতভাবে মেলা অনুষ্ঠিত হবে বলে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক আশা করেন।

আগের চাইতে এবার মেলা প্রাঙ্গনে বাড়ানো হয়েছে সুযোগ সুবিধা। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা থাকবে। প্রচার কার্যক্রমের জন্য তথ্যকেন্দ্র থাকবে বর্ধমান ভবনের পশ্চিম বেদিতে এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। এছাড়া, মেলায় আগতদের বসার স্থানসহ নান্দনিক ফুলের বাগানও নির্মাণ করা হয়েছে। সাংবাদিকদের অবাধ তথ্য আদান-প্রদানের সুবিধার্থে গ্রন্থমেলায় মিডিয়া সেন্টার থাকবে তথ্যকেন্দ্রের উত্তর পাশে। মেলায় থাকছে ওয়াইফাই সুবিধা।

বাংলাটিভি/কায়েস

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close