নির্বাচনবাংলাদেশ

সংরক্ষিত নারী আসনের ভোটগ্রহণ ৪ঠা মার্চ

গত ৩০ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। নির্বাচনে দেশের সবকটি দলই অংশগ্রহণ করে। তবে নিরুংকুশ বিজয় লাভ করে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীণ আওয়ামী লীগ। এবার পুরোদমে প্রস্তুতিতে সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচন নিয়ে। নির্বাচনের তারিখও ঠিক হয়ে গেছে। ঘোষনা করা হয়েছে সম্পূর্ন ইশতেহার।

একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্যদের মার্চের ৪ তারিখে নির্বাচিত করা হবে। রবিবার কমিশন সভা শেষে, ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ নির্বাচনের এই দিনটি ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, এ নির্বাচনে অংশ নিতে ১১ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেয়া যাবে। ১২ই ফেব্রুয়ারি বাছাইয়ের পর প্রত্যাহার করা যাবে ১৬ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

আইন অনুযায়ী, সরাসরি ভোটে জয়ী দলগুলোর আসন সংখ্যার অনুপাতে নারী আসন বন্টন করা হয়। সংসদের সাধারণ আসনে নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা  সংরক্ষিত আসনের নির্বাচনের ভোটার হন।

এ নির্বাচনে ভোটের জন্য একটি দিন রাখা হলেও, ফল জানা যায় তার আগেই। ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনের বিপরীতে দল ও জোটগতভাবে সমান সংখ্যক প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া হবে বলে প্রত্যাহারের সময়সীমা পার হওয়ার দিনই তাদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হতে পারে।

সংখ্যাগরিষ্ঠতা অনুযায়ী, সংরক্ষিত নারী আসনে এবারে আওয়ামী লীগ পাচ্ছে ৪৩টি আসন। এছাড়া জাতীয় পার্টি ৪, বিএনপি ১, ওয়ার্কাস পার্টি ১, স্বতন্ত্র ১ জন করে প্রার্থী দিতে পারবেন সংরক্ষিত আসনের জন্য।

এছাড়া আগামী ১০ই মার্চ উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ধাপে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। তিনি জানান প্রথম ধাপে দেশের চারটি বিভাগের ১২ জেলার ৮৭টি উপজেলায় এই ভোটগ্রহণ নেয়া হবে। রবিবার বিকেলে, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে এ কথা জানান, কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

পাঁচ ধাপে উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে হেলালুদ্দিন আহমদ জানান, ‘১০ই মার্চ প্রথম ধাপে দেশের চারটি বিভাগের ১২ জেলার ৮৭টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ১১ই ফেব্রুয়ারি, যাচাই-বাছাই ১২ই ফেব্রুয়ারি এবং প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ১৯শে ফেব্রুয়ারি।

উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ধাপে রংপুর বিভাগের পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, নীলফামারী, লালমনিরহাট এবং রংপুর জেলার সবক’টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান, ইসি সচিব জানান।

এছাড়া, ময়মনসিংহ বিভাগের জামালপুর জেলার সবক’টি উপজেলা এবং নেত্রকোণার আটাপাড়া ছাড়া সবক’টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সিলেট বিভাগের হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ ছাড়া সব উপজেলা এবং সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর ছাড়া সব উপজেলায় ভোট অনুষ্ঠিত হবে। আর রাজশাহী বিভাগের জয়পুরহাট জেলা, রাজশাহী জেলার সবক’টি উপজেলায় ভোট অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ ছাড়া সবক’টি উপজেলা এবং নাটোরের নলডাঙ্গা বাদে সবগুলো উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

উপজেলা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার আগেই লাভজনক পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে বলেও জানান হেলালুদ্দীন আহমদ।

বাংলাটিভি/কায়েস

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close