বাংলাদেশরাজনীতি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সুষ্ঠ ভোটের আশা উপাচার্যের

                                                                                                                                                                             আসন্ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত হবে বলে আশা  ব্যক্ত করেছেন (ভিসি) অধ্যাপক ড. মো.আকতারুজ্জামান,সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে এক ভাষণে তিনি এই  আশা ব্যক্ত করেন

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হওয়ার পর ডাকসু নির্বাচন দেবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন উপাচার্য। এরপর গত বছরের জানুয়ারিতে ‘২০১৯ সালের মার্চেই’ ডাকসু নির্বাচন হবে বলে সিদ্ধান্তের কথা জানান। অবশেষে ২৮ বছর পর এ মাসে অনুষ্ঠিতব্য ডাকসু নির্বাচনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানালেন ভিসি।

ভিসি বলেন, ‘গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নিজের ও অপরের মতপ্রকাশের স্বাধীনতার প্রতি বিশ্বস্ত থেকে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে ভোট প্রদান ও নির্বাচিত হওয়ার অধিকার প্রয়োগ করে সমগ্র জাতির জন্য অতীতের মতো ঢাবি শিক্ষার্থীরা মহান আদর্শের সৃষ্টি করবে, এ বিশ্বাস আমার আছে,  গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নির্বাচনের স্বাভাবিক পরিণতি জয়-পরাজয়কে ধৈর্য ও শ্রদ্ধাশীল চিত্তে মেনে নেওয়া এক উদার মানবিক মূল্যবোধ। প্রক্টরিয়াল টিম ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্দেশে ভিসি বলেন, ‘ক্যাম্পাসে বিদ্যমান শান্তিপূর্ণ, সুশৃঙ্খল পরিবেশ যাতে কোনোক্রমেই বিঘ্নিত না হয়, সে বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিশেষ করে প্রক্টরিয়াল টিম সতর্ক থাকবে। নির্বাচনের দিন এবং এর আগে ও পরে প্রক্টরিয়াল টিমকে বিশেষ সহায়তা প্রদানের জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের আন্তরিক সহযোগিতাও কামনা করেন।

ভিন্ন মতাদর্শ একটি সমাজের সৌন্দর্য উল্লেখ করে আখতারুজ্জামান বলেন, ‘ভিন্ন মতাদর্শ টিকে থাকতে পারে একমাত্র উদারনৈতিক, মানবিক ও অসাম্প্রদায়িক সমাজে। শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের চর্চা যেন সব সময় অব্যাহত থাকে, সে প্রত্যাশা করেন তিনি। ডাকসু নির্বাচন যেন বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ক্যালেন্ডার ইভেন্টে পরিণত হয়, সে জন্য সংশ্লিষ্ট সকল মহলের আন্তরিক সদিচ্ছা ও সদয় সহযোগিতাও প্রত্যাশা কামনা করেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সামাদ, চিফ রিটার্নিং অফিসার অধ্যাপক ড. এস এম মাহফুজুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন, রেজিস্ট্রার এনামুজ্জামান, প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রাব্বানীসহ বিভিন্ন হলের প্রাধ্যক্ষ, বিভিন্ন প্যানেলের প্রার্থী, স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ সাধারণ শিক্ষার্থীরা

।বাংলাটিভি/শহীদ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close