অন্যান্যজাতীয় নির্বাচনবাংলাদেশ

চতুর্থধাপে ভোটগ্রহণ চলছে ১০৭ উপজেলায়

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থধাপে ১০৭টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। রোববার সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে টানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত। সকালে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম হলেও, বেলা বাড়ার সাথে সাথে তা বাড়তে থাকে বলে আশা করছেন নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা।

ভোট সুষ্ঠু করতে এবং যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আনসার, পুলিশ, বিজিবিসহ  আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা মোতায়েন রয়েছে।

নির্বাচন কমিশন চতুর্থ ধাপে ১২২ উপজেলায় তফসিল ঘোষণা করে। এরসঙ্গে তৃতীয় ধাপ থেকে চতুর্থ ধাপে যুক্ত হয় ৬ উপজেলা। ১২৮টি উপজেলার মধ্যে ১৫টি উপজেলার সবকটি পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় জয়ী হওয়ায় ভোট হবে না।

এই নির্বাচনে ছয় উপজেলায় (পটুয়াখালী সদর, কক্সবাজার সদর, বাগেরহাট সদর, ময়মনসিংহ সদর, মুন্সীগঞ্জ সদর ও ফেনী সদর) ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট হচ্ছে।

এছাড়া আদালতের নির্দেশে ৪টি এবং নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে ২টি উপজেলায় ভোট স্থগিত হয়। এই ধাপে ৬ উপজেলায় ভোট হচ্ছে ইভিএম পদ্ধতিতে।

কোনো পদেই প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় যে ১৫টি উপজেলা পরিষদে ভোট হচ্ছে না।  সেগুলো হলো ভোলার ভোলা সদর, মনপুরা ও চরফ্যাশন, যশোরের শার্শা, ময়মনসিংহের গফরগাঁও, কুমিল্লার লাকসাম, নাঙ্গলকোট,  ঢাকার সাভার ও কেরানীগঞ্জ, মনোহরগঞ্জ, দেবীদ্বার ও চৌদ্দগ্রাম, নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা ও ফেনীর পরশুরাম।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, চতুর্থ ধাপের ভোটে চেয়ারম্যান পদে মোট প্রার্থী ৩৫১ জন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ৫৩৩ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ৪০৬ জন।

মোট ভোটকেন্দ্র ৯ হাজার ৭৪০ টি। ভোটকক্ষের সংখ্যা ৬৩ হাজার ৬৯৬। মোট ভোটার ২ কোটি ৫৫ লাখ ৪০ হাজার ৭০৪ জন।

বাংলাটিভি/হাকিম

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close