অন্যান্যপ্রধানমন্ত্রীবাংলাদেশ

অগ্নি নিরাপত্তায় মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন

বহুতল ভবনে অগ্নি নিরাপত্তার ঝুঁকি প্রশমনে মন্ত্রিসভায় বেশকিছু নির্দেশনা ও অনুশাসন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ নির্দেশনা দেন তিনি।ফায়ার সার্ভিসের ছাড়পত্র প্রতিবছর নবায়নসহ আগুন প্রতিরোধে বেশ কিছু অনুশাসন দেন প্রধানমন্ত্রী। মন্ত্রিসভার বৈঠকের শুরুতেই বনানীর এফ আর টাওয়ারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় শোক প্রস্তাব জানায় মন্ত্রিসভা।

সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের সভা শেষে এসব তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রিপরিষদ সভায় অগ্নিকাণ্ড নিয়ন্ত্রণে বেশ কিছু অনুশাসন ও নির্দেশনা দেন । নির্দেশনাগুলো হলো- যেকোন ভবন নির্মাণে সব মন্ত্রণালয়ের ছাড়পত্র দেবার পর তা পুনরায় পরিদর্শন করা। কিছুদিন অন্তর অন্তর অগ্নি নির্বাপণ মহড়ার আয়োজন করা।

সচিব বলেন, জরুরি বহির্গমনসহ অগ্নি নিরাপত্তায় বহুতল ভবনে ফায়ার সেফটি লাইসেন্স করা, রাজধানীর লেকগুলো সংস্কার করা,ভবনে শতভাগ ইমার্জেন্সি ফায়ার এক্সিট নিশ্চিত করাসহ বেশ কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়।

এছাড়ও তিনি বলেন, পানির অভাব পূরণে নতুন জলাশয় সৃষ্টি ও জলাশয় পুনরুদ্ধার, বহুতল ভবনে ওঠার জন্য ফায়ার সার্ভিসের সক্ষমতা বাড়ানো এবং প্রতিটি ভবনে একাধিক অ্যানালগ ফায়ার এক্সিটের ব্যবস্থা রাখার নির্দেশ  দেন ।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান,অগ্নিকাণ্ড নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা সম্পর্কে মাঝে মধ্যে মহড়া দেয়া , যাতে সবাই সচেতন হয়। পানির সমস্যার সমাধানে যেখানে যেখানে সম্ভব জলাশয় বা জলাধার তৈরী করা।

শফিউল আলম আরো বলেন , এখন ঢাকা শহরে আর আগের মতো,নদী,খাল বা ঝিল নেই। সাকুল্যে তিনটি হাইরাইজ ল্যাডার(মই)আছে ২৩তলা পর্যন্ত উঠার জন্য। এ সংখ্যা বাড়ানো এবং ফায়ার সার্ভিসের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। কমপক্ষে আরো তিনটি ৩০ তলা পর্যন্ত উচু হাইরাইজ ল্যাডার(মই)করার কথাও জানান তিনি।

এছাড়া হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় আইন ও গাজীপুর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইনের খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়  মন্ত্রিসভায় ।

বাংলাটিভি/ফাতেমা

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close