অপরাধআইন-বিচার

সাত খুন মামলা: দ্রুত রায় কার্যকরের দাবি

নারায়ণগঞ্জে আলোচিত সাত খুনের ৫ বছর পূর্ণ হলো আজ ২৭ এপ্রিল। নিহত ব্যক্তিদের সবার স্বজনের এখন একটাই দাবি, খুনিদের ফাঁসির রায় দ্রুত কার্যকর করা হোক। এদিকে পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারানোয় নিহত ব্যক্তিদের স্বজনদের কয়েকজনের দিন কাটছে অভাব–অনটনে। তাঁরা সরকারের কাছে সহায়তার দাবি করেছেন।

নৃশংস এ হত্যাকাণ্ডের মামলায় নিম্ন আদালত সাবেক কাউন্সিলর নূর হোসেন ও র‌্যাবের সাবেক তিন কর্মকর্তাসহ ২৬ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেন এবং অপর ৯ আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়। হাইকোর্ট ১৫ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখেন। গত মাসে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত মূল আসামিরা আপিল করেন। ওই তিন সাবেক কর্মকর্তা ও নূর হোসেনসহ প্রধান আসামিরা কারাগারে রয়েছেন।

নিহত তাজুলের মা বলেন, ২০১৪ সালের ঘটনা, এখন ২০১৯ সাল চলছে। এই বিচার যেনো ২০২০ সালে না যায়।

নিহত জাহাঙ্গীরের মা বলেন, আদালত ফাসির আদেশ দিয়েছে। কিন্ত এখনো কার্যকর হয়নি। ৫ বছর হয়ে গেছে।

২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল একটি মামলায় হাজিরা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের লামাপাড়া এলাকা থেকে অপহৃত হন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম, আইনজীবী চন্দন সরকারসহ সাতজন। এরপর ৩০ এপ্রিল এবং ১ মে একে একে শীতলক্ষ্যা নদীতে ভেসে ওঠে ওই সাতজনের লাশ।

বাংলা টিভি/ মাসুদ রানা 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close