অন্যান্যবাংলাদেশ

সুন্দরবনে রেড এলার্ট জারি করেছে বন বিভাগ

 

আসন্ন ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের বন্যপ্রাণীসহ প্রাণ-প্রকৃতি রক্ষা ও ইকো-ট্যুরিস্টদের ঢল সামাল দিতে সর্বোচ্চ সর্তকতা ‘রেড এ্যালার্ট’ জারি করেছে বন বিভাগ।

রোববার  বিকেলে সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান  বন বিভাগের পক্ষে এ রেড এলার্ট জারি করেন ।

এছাড়াও সুন্দরবনের সকল কর্মকর্তা ও বনরক্ষীদের ঈদের ছুটি সীমিত করা, সার্বক্ষণিক টহলের ব্যবস্থা করা হয়েছে হয়েছে। ঈদের সরকারি ছুটির শেষ দিন (৮ জুন) পর্যন্ত এই রেড এ্যালার্ট বহাল থাকবে।পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে ইকো-ট্যুরিষ্টদের ঢল সামাল দিতে, পেশাদার চোরা শিকারি ও মৌসুমি শিকারি প্রবেশ-বন্যপ্রানী পাচার রোধে সর্বোচ্চ সর্তকতা জারি করা হয়েছে।

১৮৭৫ সাল থেকে সংরক্ষিত সুন্দরবনের আয়তন হচ্ছে ৬ হাজার ১৭ বর্গ কিলোমিটার। বিশ্ব ঐতিহ্য এলাকা (ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সাইড) সংরক্ষিত সুন্দরবন প্রাণ-প্রকৃতির আধার। বাংলাদেশের সমগ্র বনাঞ্চলের অর্ধেকের বেশী হচ্ছে সুন্দরবন।

সুন্দরবনে সুন্দরী, পশুর, গেওয়া, গরান, ধুন্দল, গোলপাতাসহ ৩৩৪ প্রজাতির উদ্ভিদ  এই বনে রয়েছে  বাংলাদেশের জাতীয় পশু রয়েল বেঙ্গল টাইগার, চিত্রল ও মায়াবী হরিণ, কিং-কোবরা, বানর, গুইসাপসহ প্রায় ১০০ প্রজাতির স্তন্যপায়ী ও সরীসৃপ, ৮ প্রজাতির উভচরসহ ৩২০ প্রজাতির বন্যপ্রাণীর বসবাস।

এছাড়াও সুন্দরবনের অভ্যন্তরে নদী ও খালে রয়েছে বিশ্বের বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির ইরাবতীসহ ৬ প্রজাতির ডলফিন, লবণ পানির কুমির রূপালী ইলিশ, চিংড়ী, রূপচাঁদা, কোরালসহ ৪০০ প্রজাতির মাছ।

বাংলাটিভি/শহীদ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close