বাংলাদেশ

জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত

এক মাস রোজার পর খুশি আর আনন্দের বারতা নিয়ে বছর ঘুরে আবার এলো ঈদুল ফিতর। সারা দেশজুড়ে পালিত হচ্ছে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় এই ধর্মীয় উৎসব। সকালে রাজধানীর জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে দেশ ও মানুষের কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত করা হয়। সাধারণের মানুষের প্রত্যাশা ঈদের মূল বার্তা কাজে লাগিয়ে সবাই মিলে যেন একটি সুখি-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলে।

দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর বুধবার সকাল থেকেই বৃষ্টি উপেক্ষা করে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়ের জন্য রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সুপ্রিম কোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহে নানা বয়সী মুসল্লিদের ঢল নামে। বড়দের হাত ধরে শিশুরাও জামাতে শামিল হতে আসে।

ঈদগাহের প্রতিটি প্রবেশ পথেই বসানো হয় নিরাপত্তা বেষ্টনি। র‍্যাব পুলিশের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো, তল্লাশি ও নিরাপত্তা বলয় পেরিয়ে লাইন ধরে ভেতরে প্রবেশ করতে হয় সবাইকে।

সকাল ৮টার আগেই ঈদের প্রধান এই জামাত জাতীয় ঈদগাহ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। আল্লাহু আকবার তাকবির ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠে ঈদগাহ ময়দান।

সকাল সাড়ে ৮টায় শুরু হয় ঈদের প্রধান জামাত। তবে তুমুল বৃষ্টির কারণে এবার ঈদগাহের বাইরে কোনো মুসল্লি জামাতে অংশ নিতে পারেননি। প্রধান ঈদের জামাতে ইমামতি করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের জ্যেষ্ঠ পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আবদুল হামিদ, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ছাড়াও মন্ত্রী পরিষদের সদস্য, সংসদ সদস্য, রাজনীতিক, কূটনীতিকসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা এতে অংশ নেন।

ঈদগাহ প্রাঙ্গণ ছাপিয়ে জামাত ছড়িয়ে পড়ে মৎস্য ভবন, দোয়েল চত্বর ও জাতীয় প্রেসক্লাব পর্যন্ত।

নামাজ শেষে দেশ-জাতি ও বিশ্বের মঙ্গল কামনায় দোয়া প্রার্থনা করা হয়। মোনাজাতের সময় আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন অনেকে।

পড়ে কোলাকুলির মাধ্যমে একে অপরের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন সবাই। মুসল্লিরা বলেন, রমজানের শিক্ষা ব্যক্তি ও জাতীয় জীবনে কাজে লাগাতে পারলেই সুন্দর সমাজ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব।

বাবা ও পরিবারের বড়দের সাথে ঈদের জামাতে অংশ নিতে পেরে খুশি শিশুরাও।

ঈদ একদিকে যেমন নিয়ে আসে আনন্দের বার্তা, তেমনি শিক্ষা দেয় শান্তি, সহমর্মিতা ও ভ্রাতৃত্ববোধের। সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা ঈদের দিনের মতো হিংসা, বিদ্বেষ ও হানাহানি ভুলে সবাই মিলে গড়ে তুলোক সুখি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ।

বাংলাটিভি/রিয়েল

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close