বাংলাদেশবিএনপি

খালেদা জিয়ার মুক্তি,দরকার দুই মামলায় জামিন

 

৩৬ মামলার মধ্যে ৩৪টিতে জামিন পাওয়ায় খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি আবার আলোচনায় এসেছে। কারাগার থেকে মুক্তি পেতে খালেদা জিয়ার আর দরকার দুই মামলায় জামিন। দুর্নীতির দুই মামলায় ১৭ বছরের জন্য দণ্ডিত হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন। প্রায় দেড় বছর ধরে সাজা ভোগ করছেন তিনি।
গত মঙ্গলবার মানহানির দুই মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন পান বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। মানহানির দুই মামলার শুনানিতে আদালতে বিরোধীতা করেননি রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা মাহবুবে আলম। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের গেলো সপ্তাহে কয়েকটি অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে কথা বলেছেন।

এ সময় তিনি বলেন আদালত যদি নির্দেশ দেয় তিনি জেলের বাইরে থাকবে, সেখানে সরকারের কোন বাধা থাকতে পারে না।রাষ্ট্রপক্ষের নমনীয়তা খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে সুবাতাস বইছে বলে মনে করেন তার আইনজীবীরা।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদিন বলেন, আদালত কখনো কোন আসামীকে কারাগারে রাখেন না। বেগম খালেদা জিয়া জামিন পাওয়ার জন্য যে সকল তথ্যা দরকার সবগুলোই রয়েছে। তাই একজন আইনজীবি হিসেবে মনে করি আইনগতভাবেই তার জামিন পাওয়ার এখতিয়ার রয়েছে।

জিয়া চ্যারিটেবল দুর্নীতি মামলার রায়ের নথি বিচারিক আদালত থেকে হাইকোর্টে পৌঁছেছে। রবিবার খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা জামিনের জন্য হাইকোর্টে আবেদন করবেন। এই মামলায় খালেদা জিয়াকে সাত বছরের দণ্ড দেয় বিচারিক আদালত। একই সাথে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলাও জামিন আবেদন করার কথা জানান, খালেদা জিয়ার আইনজীবী।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ৩৬ মামলার মধ্যে ২১টি স্থগিত রয়েছে, ১৩টি মামলা বিচারাধীন ও দুটি মামলায় দণ্ড হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন।

বাংলাটিভি/শহীদ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close