বিশ্ববাংলা

স্বেচ্ছায় দেশে ফিরতে বিশেষ সুযোগ দিচ্ছে লেবানন সরকার

লেবাননে বসবাসরত অবৈধ এবং স্বেচ্ছায় দেশে ফিরতে ইচ্ছুক বাংলাদেশিদের বিশেষ সুযোগ দিয়েছে দেশটির সরকার। তবে যেসব প্রবাসীর নামে চুরি, মাদক ও ফৌজদারী মামলা বা কোর্টের গ্রেফতারী পরোয়ানা রয়েছে, তারা এ কর্মসূচীর আওতায় অর্ন্তভুক্ত হবেনা। শুক্রবার বিকেলে দূতাবাসের হলরুমে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

দূতাবাসের দীর্ঘ প্রচেষ্টার ফলে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ লেবাননে বসবাসরত প্রায় ৪০ হাজার অবৈধ এবং স্বেচ্ছায় দেশে ফিরে আসতে ইচ্ছুক বাংলাদেশিদের বিশেষ সুযোগ দিয়েছে দেশটির সরকার। গত ৬ সেপ্টেম্বর দূতাবাসের হলরুমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত।

এই কর্মসূচী ৩টি ধাপে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চালু থাকবে।প্রথম ধাপে আগামী ১৫, ১৬ ও ১৭ সেপ্টেম্বর। ২য় ধাপে আগামী নভেম্বর ও ৩য় ধাপে ডিসেম্বরে দূতাবাসে আবেদন গ্রহন করা হবে বলে জানান রাষ্ট্রদূত।

ফিরে আসার জন্য প্রত্যেক আবেদনকারী পুরুষ কর্মীর ক্ষেত্রে এক বছরের জরিমানা বাবদ ২৬৭ মার্কিন ডলার ও মহিলা কর্মীর ক্ষেত্রে ২০০ মার্কিন ডলারসহ এয়ার টিকেট এর মূল্য বাবদ ৩০০ মার্কিন ডলার নিয়ে স্বশরীরে দূতাবাসে হাজির হয়ে আবেদন করতে হবে।

রাষ্ট্রদুত আরো জানান, যাদের নামে চুরি, মাদক ও ফৌজদারী মামলা বা কোর্টের গ্রেফতারী পরোয়ানা রয়েছে তারা এ কর্মসূচীর আওতায় পড়বে না।
যারা দেশে যাওয়ার আবেদন করবেন ক্লিয়ারেন্স পাওয়ার পর অবশ্যই তাদেরকে দেশে ফিরে যেতে হবে। অন্যথায় লেবাননের জেনারেল সিকিউরিটি তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবে

এসময়, দূতাবাসের শ্রম সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন, দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা, বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতৃবৃন্দসহ গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close