দেশবাংলা

ড্রাগন চাষে স্বাবলম্বী হওয়ার সুযোগ

বহুগুণে সমৃদ্ধ বিদেশি ফল ড্রাগন এবার হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার পল্লীতে চাষ হচ্ছে। দিনদিন বাড়ছে এর চাহিদা। ফলে এ ফল চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছেন অনেকে। আর অল্প সময়ে স্বল্প পুঁজিতে ড্রাগন চাষে বেকার যুবকদের স্বাবলম্বী হওয়ার বিশাল সুযোগ রয়েছে বলে মনে করছে কৃষি অধিদপ্তর।

ড্রাগন মূলত সেন্ট্রাল আমেরিকার প্রসিদ্ধ একটা ফল। পাতাবিহীন ফলটি দেখতে ডিম্বাকার ও লাল রঙের। খেতেও বেশ সুসাদু। এ ফলে রয়েছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি, মিনারেল এবং উচ্চ ফাইবার যুক্ত জুস তৈরিতেও এ ফলটি অত্যন্ত উপযোগী। এতে ক্যালোরির পরিমাণ কম। তাই, এটি নিয়মিত খাদ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা যায়।

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার পাহাড়ী অঞ্চল দিনারপুর পরগনার পানিউমদা গ্রামের ববানি চা বাগানের প্রায় ১ একর জমিতে আমেরিকান ফল ড্রাগন চাষ করেছেন, মশিউর রহমান। স্বল্প খরচে অধিক লাভ হওয়ায় এলাকার অনেকে এ ফল চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন।

রোগ-বালাই ও পোকামাকড়ের আক্রমণ কম বিধায়, ড্রাগন চাষে লাভবান হচ্ছেন কৃষকরা। নবীগঞ্জ উপজেলার একটি সম্ভাবনাময় ফল বলে মনে করছেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কে.এম মাকসুদুল আলম।

ড্রগন ফল, গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছে কৃষি অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক তমিজ উদ্দিন খাঁন ।

সংশ্লিষ্টদের মতে, শিক্ষিত বেকাররা চাকরির পেছনে না ছুটে, বসতবাড়ির আশপাশে ড্রাগন ফল চাষ করে নিজেদের পুষ্টি চাহিদা পূরণের পাশাপাশি, ব্যক্তিগত আয়ের পথ সুগম করতে পারেন।

মতিউর রহমান মুন্না, হবিগঞ্জ

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close