অপরাধবাংলাদেশ

ধর্ষক গ্রেফতার, শনাক্ত করেছেন নির্যাতিতা

রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণে জড়িত মজনু নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। তিনিই যে এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে, র‌্যাব। এছাড়া তার কাছ থেকে ওই ছাত্রীর মোবাইলসহ অন্য জিনিসপত্রও উদ্ধার করা হয়েছে।

আটক ব্যক্তি একজন অটোচালক বলেও জানা গেছে। ওই যুবকের কাছ থেকে ওই ছাত্রীর মোবাইল ফোন, চার্জার ও ব্যাগ পাওয়া গেছে। এখন তাকে রাজধানীর কাওরান বাজারের র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আনা হয়েছে। এ সম্পর্কে দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে বিস্তারিত ব্রিফিং করবে র‌্যাব।

এর আগে, নির্যাতিত শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ধর্ষকের একটি বর্ণনা পায় পুলিশ। সেই অনুযায়ী প্রযুক্তির সহায়তায় তাকে গ্রেপ্তারে অগ্রসর হয়। সেই সূত্রে মঙ্গলবার রাতে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে তিন সন্দেজনককে আটক করে। পরে নির্যাতিতার শনাক্তের ভিত্তিতে তাদের মধ্য থেকে একজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

র‍্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সারোয়ার বিন-কাশেম বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তির ছবি ধর্ষণের শিকার ছাত্রীকে দেখানো হয়েছে। তিনি তাকে ধর্ষক বলে শনাক্ত করেছেন।

ক্যান্টনমেন্ট থানায় করা মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ধর্ষকের উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চির মতো। গায়ের রং শ্যামলা, গড়ন মাঝারি। পরনে জিনসের পুরোনো ফুলপ্যান্ট ও ময়লা কালচে ফুলহাতা জ্যাকেট, পায়ে স্যান্ডেল এবং মাথার চুল ছোট করে ছাঁটা। মামলায় অজ্ঞাত ৩০-৩৫ বছরের এক যুবককে আসামি করা হয়।

এর আগে গত রোববার (৬ জানুয়ারি) রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস থেকে নামার পর এক ছাত্রীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে অজ্ঞাত এক যুবক। এর প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারা দেশ। দোষীদের বিচারের দাবিতে প্রতিদিন চলছে বিক্ষোভ।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close