দেশবাংলা

জীবনের ঝুঁকিতে ঘটখালি আবাসন প্রকল্পের ৮০ পরিবার

নেই সুপেয় পানির ব্যবস্থা, নেই পয়নিষ্কাশনের ব্যবস্থাও, খসে পড়ছে পলেস্তারা। বর্ষা মৌসুম তো দূরে থাক শীতের সময়ও ভবনের এর ছাদ চুঁইয়ে পানি পড়ছে ঘরের ভেতর। যেকোন সময় ছাদ ভেঙে ঘটতে পারে মারাত্মক দুর্ঘটনা।

তবুও, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নিরুপায় বসবাস করছেন, বরগুনার আমতলী উপজেলার ঘটখালি আবাসন প্রকল্পের ৮০টি পরিবার। তবে প্রশাসন বলছে, দ্রুত এসব ঝুঁকিপূর্ণ আবাসন প্রকল্পগুলো চিহ্নিত করে, মেরামতের উদ্যোগ নেয়া হবে।

বরগুনার আমতলী উপজেলা সদরের পায়রা নদীর পাড়ে ২০১২ সালে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের বিশেষ অনুদানে নির্মিত হয় ঘটখালী আবাসন প্রকল্প। এ প্রকল্পের ১৬টি ব্যারাকে পুনর্বাসিত করা হয় ৮০টি পরিবারকে। মাত্র ৭ বছরের ব্যবধানে ঘরগুলো ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। দেয়ালের পলেস্তারা খসে বিভিন্নস্থানে দেখা দিয়েছে ফাঁটল।

এখানে নেই কোনো পয়নিষ্কাশনের ব্যবস্থা। ল্যাট্রিনগুলোও হয়ে গেছে ব্যবহার অনুপযোগী। ৮টি টিউবওয়েল স্থাপন করা হলেও, তা অকেজো হয়ে পড়ে আছে। সুপেয় পানির সংকটসহ নানা সমস্যায় আবাসনের ৫ শতাধিক মানুষের জীবন কাটছে দূর্বিষহ।

এসব সমস্যা নিয়ে একাধিকবার উপজেলা সমন্বয় সভাসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে জানালেও কোন সুফল পায়নি আবাসনবাসী। তবে মেরামতের উদ্যোগ নেয়ার পাশাপাশি নতুন জায়গা দেখা হচ্ছে, যেখানে গৃহহীনদের নতুন ব্যারাক হাউজ করে পুণর্বাসিত করা যায়। জানালেন, বরগুনা জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ।

প্রকল্পে বসবাসরত ৫ শতাধিক অসহায় মানুষের জীবনযাপনের কথা ভেবে প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপ চাইছেন ভূক্তভোগীরা।

মো. বেলাল হোসেন, বরগুনা প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close